Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 

হিলি স্থলবন্দরে চলতি অর্থবছরের পাঁচ মাসে রাজস্ব ঘাটতি সাড়ে ৩৫ কোটি টাকা 

আপডেট : ১২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:৫৫

রাজস্ব আহরণে ঘাটতি থাকায় চলতি অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা অসম্ভব। ছবি: আজকের পত্রিকা দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর থেকে চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত প্রথম পাঁচ মাসে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে রাজস্ব আহরণে ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৫ কোটি ২৭ লাখ টাকা। এ সময় বন্দর থেকে রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৯৭ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। এর বিপরীতে ওই সময়ে আহরণ করা হয়েছে ১৬২ কোটি ৩১ লাখ টাকা। বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানির যে ধারা, তাতে অর্থবছরের বাকি সময়ের মধ্যে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা অসম্ভব বলে জানিয়েছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। 

হিলি স্থল শুল্ক স্টেশন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বিগত ২০২০-২১ অর্থবছরে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার অধিক রাজস্ব আহরণ করায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর থেকে রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা কিছুটা বাড়িয়ে নির্ধারণ করে ৪৫৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা। সেই হিসাব মোতাবেক অর্থবছরের প্রথম জুলাই মাসে বন্দর থেকে রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩৬ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। এর বিপরীতে আহরিত হয়েছে ৩৩ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। আগস্ট মাসে ৪৩ কোটি ৯৬ লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আহরিত হয়েছে ২৬ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। সেপ্টেম্বর মাসে ৩৭ কোটি ৯৩ লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আহরিত হয়েছে ৩৫ কোটি ১৯ লাখ টাকা। অক্টোবর মাসে ৩৯ কোটি ২ লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আহরিত হয়েছে ৩৪ কোটি ৩১ লাখ টাকা। নভেম্বর মাসে ৪০ কোটি ৩২ লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে ৩২ কোটি ৫৪ লাখ টাকা আহরিত হয়েছে। 

বন্দরে পণ্য ট্রাক বোঝায় করে রাখা হয়েছে। ছবি: আজকের পত্রিকা হিলি স্থল শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা এস এম নুরুল আলম খান বলেন, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে হিলি স্থল শুল্ক স্টেশন থেকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা অনেক বেশি নির্ধারণ করে দিয়েছে, যার কারণে অর্থবছরের শুরু থেকেই কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হচ্ছে না। তবে গত অর্থবছরের তুলনায় চলতি অর্থবছরে রাজস্ব আহরণ বেশি হচ্ছে। শুধু নভেম্বর মাসেই গত অর্থবছরের তুলনায় রাজস্ব আহরণে প্রবৃদ্ধির পরিমাণ রয়েছে ২২ শতাংশ। 

রাজস্ব কর্মকর্তা আরও বলেন, বন্দরের রাজস্ব আহরণ মূলত বন্দর দিয়ে পণ্য আমদানি-রপ্তানির ওপর নির্ভর করে। তবে বর্তমানে বন্দর দিয়ে দুই দেশের মধ্যে পণ্য আমদানি-রপ্তানির যে ধারা বিরাজমান রয়েছে, তাতে অর্থবছরের বাকি সময়ে রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা অসম্ভব। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    দিনাজপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় মা-মেয়ের পর ‍শিশুর মৃত্যু

    পুতুলকে নিয়ে কটূক্তি, ডিজিটাল নিরাপত্তা মামলায় গ্রেপ্তার সেই যুবক রিমান্ডে

    দুই মাস পর ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু

    ফুলবাড়ীতে বিদ্যুতায়িত হয়ে ১ জনের মৃত্যু 

    দিনাজপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত, বাবা-ছেলে হাসপাতালে 

    ৮ দিন বাংলাবান্ধা বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ, যাত্রী পারাপার চলবে

    বিএম ডিপো থেকে পণ্যভর্তি অক্ষত কনটেইনার সরানো শুরু

    পতেঙ্গা কনটেইনার টার্মিনাল চালু হচ্ছে এ মাসেই

    কিশোরী নেতৃত্ব এবং কর্মশালাবিষয়ক সেমিনার

    পুলিশের গুলিতে নিহত জেল্যান্ড ওয়াকারের মরদেহে পরানো হয়েছিল হাতকড়া

    পাবনায় স্বামীর বিরুদ্ধে ছুরিকাঘাতে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

    সিলেটে ব্লগার অনন্ত হত্যা: বেঙ্গালুরুতে গ্রেপ্তার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ফয়সাল