মিজানুর রহমান : ৫ দিনে করোনা সংক্রমনে শীর্ষে ফরিদপুর ও দিনাজপুর জেলা।

২৬ জুলাই থেকে ৩০ জুলাই জেলাভিত্তিক সংক্রমনের বৃদ্ধির সংখ্যা

আইডিসিআর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী গত পাঁচ দিনে করোনা সংক্রমনের শীর্ষে রয়েছে ফরিদপুর ও দিনাজপুর জেলা। গত ২৬ জুলাই থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত আইডিসিআর থেকে প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় সংক্রমনের বৃদ্ধির দিক থেকে শীর্ষে রয়েছে ফরিদপুর ও দিনাজপুর জেলা। ফরিদপুর জেলায় সংক্রমনের বৃদ্ধির সংখ্যা ৯১৯ জন এরপরই রয়েছে দিনাজপুর জেলার সংক্রমনের বৃদ্ধির সংখ্যা ৬৩৩ জন। অন্যদিকে সংক্রমনের হ্রাসের দিকে রয়েছে ময়মনসিংহ বিভাগের শেরপুর, ময়মনসিংহ জেলা, সিলেট বিভাগের সিলেট সদর, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ জেলা। ঢাকা বিভাগের কিশোরগঞ্জ, বি.বাড়িয়া জেলা। চট্টগ্রামের বিভাগের মধ্যে বান্দরবান, রাঙামাটি, কুমিল্লা ও ফেনী জেলা। বরিশাল বিভাগের মধ্যে রয়েছে বরিশাল জেলা, পিরোজপুর জেলা, ঝালকাটি জেলা। খুলনা বিভাগের মধ্যে রয়েছে যশোর জেলা। রাজশাহী বিভাগের মধ্যে রয়েছে শুধুমাত্র বগুড়া জেলা।

সংক্রমনের বৃদ্ধির সংখ্যা ২০০ জনের উপরে রয়েছে রংপুর বিভাগের ৪ জেলাঃ কুড়িগ্রাম (২২৮জন) , রংপুর (৫৫৬জন) , গাইবান্ধা (২৯০জন) , দিনাজপুর (৬৩৩জন) জেলা। ঢাকা বিভাগের ৪ জেলাঃ টাঙাইল (২৮৫জন), রাজবাড়ী (২৯৬জন), ফরিদপুর(৯১৯জন), গোপালগঞ্জ (৩৩৯জন) জেলা। রাজশাহী বিভাগের রয়েছে একটি মাত্র জেলা রাজশাহী সদর (৩২২জন)। খুলানা বিভাগের মধ্যে রয়েছে শুধুমাত্র খুলনা সদর(৩৭২জন) । বরিশাল বিভাগের মধ্যে রয়েছে নোয়াখালী জেলা (২১৭জন)।

৮ মার্চ থেকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত করোনা সংক্রমনের সংখ্যা

গত ২১ এপ্রিল ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ (ফমেক) হাসপাতালের ল্যাবে করোনা শনাক্তের প্রথম দিনে একজনের কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছিলো। তারপর থেকে ক্রমন্বয়ে এ জেলাতে সংক্রমনের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত পাঁচদিনে ফরিদপুর জেলায় নতুন করে ক‌রোনা রোগী শনাক্ত হ‌য়ে‌ছেন ৯১৯ জন। জেলায় সর্ব‌মোট কো‌ভিড-১৯ প‌জে‌টিভ রো‌গির সংখ্যা হ‌লো ৪৫১২ জ‌ন। অন্যদিকে দ্বিতীয় শীর্ষে থাকা জেলা দিনাজপুর গত পাঁচদিনে নতুন করে ক‌রোনা রোগী শনাক্ত হ‌য়ে‌ছেন ৬৩৩ জন। জেলায় সর্ব‌মোট কো‌ভিড-১৯ প‌জে‌টিভ রো‌গির সংখ্যা হ‌লো ১৩০৮ জ‌ন।

৮ মার্চ থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত জেলাভিত্তিক সংক্রমনের সংখ্যা
বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে প্রথম সংক্রমিত ব্যক্তি শনাক্ত হবার চার মাস ২৫ দিন পুরো হয়েছে ১ই আগস্ট। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন মোট ২ লাখ ৩৯ হাজার ৮৬০ জন, মারা গেছেন ৩ হাজার ৩১২ জনে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন সংক্রমিত হয়েছেন ২ হাজার ১৯৯ জন, মারা গেছেন ২১ জন। এ পর্যন্ত মোট মারা গেছেন ৩ হাজার ১৩২ জন। গত ৬ই এপ্রিল বাংলাদেশের মোট সংক্রমনের সংখ্যা ছিল ১০০ জন। যা মাত্র ৭৩ দিনে ১৮ই জুন ১ লাখ পূর্ণ করে। তার পর এই বৃদ্ধির ক্রমধারা ১৭ই জুলাই ২ লাখে পৌঁছে মাত্র ১৮ দিনে।

  • 58
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    58
    Shares