যেকোনো বয়সে ওজন কমানো একটি চ্যালেঞ্জ হতে পারে। ছবি: সংগৃহীত

যেকোনো বয়সে ওজন কমানো একটি চ্যালেঞ্জ হতে পারে। ৫০ এর পরে এটি আরো অনেক কঠিন মনে হয়। তবে এটি অসম্ভব নয় বিশেষ করে যদি আপনি এই বিশেষজ্ঞ-অনুমোদিত টিপস অনুসরণ করেন।

শান্ত হোন

মাঝারি বয়সকে প্রায়শই চাপ এবং উদ্বেগের সময় বলে। ছবি: সংগৃহীত

ওয়াশিংটন ডিসির ন্যাশনাল সেন্টার ফর ওয়েট অ্যান্ড ওয়েলনেস এর পরিচালক স্কট কাহান এর মতে, মাঝারি বয়সকে প্রায়শই চাপ এবং উদ্বেগের সময় বলে। ডাঃ কাহান বলেছেন, “আমাদের ব্যক্তিগত জীবন পরিচালনার পাশাপাশি ভবিষ্যৎ, পেশা, সন্তান, অবসর গ্রহণের বিষয়ে চিন্তা শুরু হয়। আমরা যত বেশি উত্তেজিত হয়ে উঠি, তখনই আমাদের এমন কাজ করা উচিত যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।“

বিশেষজ্ঞের পরামর্শ

যদি কিছুই কাজ না করে তবে অতীতে আপনি যে সমস্ত পদ্ধতি চেষ্টা করেছেন সেগুলি সহ একজন বিশেষজ্ঞের কাছে যান। ছবি: সংগৃহীত

ডাঃ কাহান বলেছেন, “যদি কিছুই কাজ না করে তবে অতীতে আপনি যে সমস্ত পদ্ধতি চেষ্টা করেছেন সেগুলি সহ একজন বিশেষজ্ঞের কাছে যান।“ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার আপনার সমস্যা সংশোধন এবং আপনার ওজন কমানোর সঠিক ও সহজ পরিকল্পনা দিয়ে সাহায্য করতে পারবেন।

হাল ছাড়বেন না

মাথা ঠাণ্ডা রাখুন এবং নিরুৎসাহিত হবার কিছুই নেই। ছবি: সংগৃহীত

গবেষণায় দেখানো হয়েছে যে বয়স্কদের মধ্যে স্থূলতা ও ওজন পরিচালনার জন্য মানসিক চাপ নিয়ে থাকে। ডাঃ কাহান বলেছেন, “মাথা ঠাণ্ডা রাখুন এবং নিরুৎসাহিত হবার কিছুই নেই।“

ঔষধপত্র দেখুন

অনেক ঔষধের কারনেও ওজন বাড়তে থাকে। ছবি: সংগৃহীত

বয়স বাড়ার সাথে সাথে আপনার ঔষধপত্রও বাড়বে। সেগুলো সহ বিশেষজ্ঞের কাছে যান। অনেক ঔষধের কারনেও ওজন বাড়তে থাকে।

খাবারের সময় নির্ধারণ

যখন খেতে ইচ্ছে করবে তখনই খেয়ে নিবেন, এই অভ্যাস থেকে বের হয়ে আসুন। ছবি: সংগৃহীত

সকালের নাস্তা, দুপুরের খাবার, বিকেলের নাস্তা এবং রাতের খাবার- সবকিছুই নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে করে নিতে হবে। যখন খেতে ইচ্ছে করবে তখনই খেয়ে নিবেন, এই অভ্যাস থেকে বের হয়ে আসুন।

স্বাস্থ্যকর নাস্তা

দিনের শুরুতে স্বাস্থ্যকর খাবার খেলে পুরো দিনটি আপনি প্রবলভাবে সক্রিয় থাকতে পারবেন। ছবি: সংগৃহীত

সকালে ঘুম থেকে উঠার পরই স্বাস্থ্যকর নাস্তার অভ্যাস করুন। দিনের শুরুতে স্বাস্থ্যকর খাবার খেলে পুরো দিনটি আপনি প্রবলভাবে সক্রিয় থাকতে পারবেন।

খাবার তালিকায় প্রোটিন যোগ করুন

নিয়মিত প্রোটিন খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। ছবি: সংগৃহীত

নিয়মিত প্রোটিন খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। প্রোটিন শরীরে শক্তি জোগান দেয়, চর্বি কমাতে সাহায্য করে।

পানি খান

পর্যাপ্ত পরিমানে পানি পান করার অভ্যাস করুন এবং সর্বদা আপনার সাথে একটি পানির বোতল রাখুন। ছবি: সংগৃহীত

নিউ ইয়র্কে সিটি পুষ্টিবিদ কেরি গ্লাসম্যানের মতে, পানি আপনাকে পূর্ণ করে এবং প্রাকৃতিক ক্ষুধা দমনকারী হিসাবে কাজ করে। তিনি বলেছেন, “বয়স বাড়ার সাথে সাথে ডিহাইড্রেশন বাড়তে থাকে। পর্যাপ্ত পরিমানে পানি পান করার অভ্যাস করুন এবং সর্বদা আপনার সাথে একটি পানির বোতল রাখুন। ”

গ্রিনটি

মেটাবলিজ বৃদ্ধি করতে এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকিও কমাতে গ্রিনটি সহায়ক। ছবি: সংগৃহীত

গ্লাসম্যান বলেছেন, মেটাবলিজ বৃদ্ধি করতে এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকিও কমাতে গ্রিনটি সহায়ক। এই অলৌকিক পানীয় ক্যান্সার, ব্রণ থেকে শুরু করে অনেক কিছুর জন্য কার্যকরী।

মাংস ও পনির

৫০ এর পর যারা মাংস ও পনির জাতীয় খাবার বাদ দিতে পারবে তাদের জন্য ওজন কমানো খুবই সহজ। ছবি: সংগৃহীত

৫০ এর পর যারা মাংস ও পনির জাতীয় খাবার বাদ দিয়ে পারবে তাদের জন্য ওজন কমানো খুবই সহজ। পিটসবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক বেথ্যানি বারোন গিবস বলেন, “যদি আপনার লক্ষ্য স্থুলতা কমানো হয় তাহলে আপনাকে দীর্ঘস্থায়ী পরিকল্পনা করতে হবে। ওজন কমানোর চিন্তা করে থাকলে আপনার খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন আনতে হবে।”

ফল ও শাকসবজি

যারা প্রচুর পরিমানে ফল ও শাকসবজি খান তারা ওজন কমানোর যুদ্ধে জয়ী। ছবি: সংগৃহীত

ড. গিবস এর মতে, যারা প্রচুর পরিমানে ফল ও শাকসবজি খান তারা ওজন কমানোর যুদ্ধে জয়ী। তিনি আরো বলেন, “শাকসবজি খাওয়া তেমন কোন বড় ব্যাপার না। ছোট ছোট এসব অভ্যাস আপনার স্বাস্থ্যের ব্যাপক পরিবর্তন এনে দিবে।“

অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার

আপেল সাইডার ভিনেগার ওজন কমাতে অনেক সাহায্য করে। ছবি: সংগৃহীত

অ্যাপল সাইডার ভিনেগার রক্ত ​​শর্করার মাত্রাগুলিকে স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে। বিশেষজ্ঞরা এটির পরামর্শ দেন। আপেল সাইডার ভিনেগার ওজন কমাতে অনেক সাহায্য করে।

আজকের পত্রিকা/রিয়া/এমএইচএস