অস্বাস্থ্য়কর স্ন্যাকস খেলে বাড়তে পারে দেহের ওজন, তাই স্ন্যাকস খান নিয়ম মেনে স্বাস্থ্যকর উপায়ে। ছবি : সংগৃহীত

ওজন কমাতে স্বাস্থ্যকর অফিস স্ন্যাকস। কর্মক্ষেত্রে মধ্যাহ্নভোজে স্ন্যাকস খাবেন? ঘরে বসেই দ্রুত স্ন্যাকস তৈরি করে অফিসে নিয়ে যান, কম ক্যালোরির এই স্ন্যাকসে পাবেন প্রচুর প্রোটিন।

আপনার ডায়েটের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ স্ন্যাকস। দিনে তিন বেলা স্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে একবার অস্বাস্থ্যকর কোনো স্ন্যাকস খেলেই ব্যস আপনার শরীরের দফারফা। আর না খেয়ে থাকলে তো আরও ক্ষতি, বাড়বে ওজন। তাই আপনাকে এমন কিছু খেতে হবে যা অফিসে কাজের ফাঁকেই টুকটাক মুখ চালাতে পারেন, চটপট খেয়ে নিতে পারেন। চলুন নেওয়া যাক স্বাস্থ্যকর কিছু স্ন্যাকস সম্পর্কে-

ঘিয়ে ভাজা মাখানা

ঘিয়ে ভাজা মাখানা। ছবি : সংগৃহীত

মাখানা হল এমন একধরণের বাদাম যাতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন এবং স্বাস্থ্যসম্মত কার্বোহাইড্রেট রয়েছে। এগুলিতে ক্যালোরি কম থাকে এবং এটির এন্টি-এজিং এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। মাখানাসে প্রচুর ম্যাগনেসিয়াম থাকলেও এটি মোটেই চটচটে নয়। মাখানা ঘি দিয়ে ভেজে একটি কাচের জারে ভর্তি করে রাখুন। আপনি চাইলে এগুলির উপরে অল্প নুন ছিটিয়ে দিন। প্রতিদিন এই ঘিয়ে ভাজা মাখানা একটি ছোট বাক্সে করে নিয়ে যান অফিসে।

কালো ছোলা ভাজা

কালো ছোলা ভাজা। ছবি : সংগৃহীত

ভাজা কালো ছোলা অন্যতম স্বাস্থ্যকর খাবার। কালো ছোলা পরিমাণ মতো নিয়ে নিন এবং কম আগুনে একটু একটু করে এগুলো ভাজুন। তারপর এয়ারটাইট কাচের জারে এগুলি ভরে রেখে দিন। পরের দিন অফিসে স্ন্যাকস হিসাবে নিয়ে যেতে পারেন এই ছোলা ভাজা। এগুলিতে ফ্যাট, ফাইবার এবং প্রোটিন বেশি থাকে। যা চটপট আপনার শরীরকে প্রয়োজনীয় উপাদান সরবরাহ করতে পারে এবং কাজের মধ্যে অল্প খিদে পেলে চট করে তা মেটাতেও পারে। লুক পরামর্শ দিয়েছেন যে অনেকদিন রাখতে হলে কালো ছোলার উপরে নুন দেবেন না। প্রয়োজনে আলাদা করে অল্প লবণ খান।

বিভিন্ন বাদাম ও বীজের মিশ্রণ

বিভিন্ন বাদাম ও বীজের মিশ্রণ। ছবি : সংগৃহীত

এটা এমন একটা স্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস যার জন্যে কোনও রান্না এবং পূর্ব প্রস্তুতির প্রয়োজন নেই। একসঙ্গে বিভিন্ন রকমের বাদাম এবং বীজ কিনে রাখুন এবং বাদাম ও বীজের একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। যেমন: মটরশুঁটি, ডাল, বাদাম ইত্যাদি। তারপর এগুলোকে কাচের জারে সংরক্ষণ করুন । বাদাম এবং বীজ হ’ল প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার যা দীর্ঘ সময়ের জন্য আপনার পেট ভর্তি রাখে।

ফল

অফিসে স্ন্যাকস হিসেবে রাখুন ফলমূল। ছবি : সংগৃহীত

কাজের ফাঁকে খান মরসুমি ফল। আপেল এবং কলা জাতীয় ফলের জন্য প্রস্তুতির কোনও প্রয়োজন হয় না এবং এগুলো স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টিকর। চটজলদি অফিসে খেয়েও নিতে পারবেন। তবে আপনি যে ফলটি বেছে নিচ্ছেন তা মরশুমি ফল হলেই ভালো হয়। সেলিব্রিটি পুষ্টিবিদ রুজুতা দিভেকার স্ন্যাক্সের জন্য একটি করে মরশুমি ফল খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। টাটকা ফলগুলি স্বাস্থ্যকর, সুষম ডায়েটের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ফলগুলো আপনাকে স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখতে সহায়তা করবে।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/