২২ ঘণ্টা পর লঞ্চ এবং ১১ ঘণ্টা পর ফেরি চলাচল শুরু

ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে আরিচা-কাজিহাট এবং পাটুরিয়া-দৌতলদিয়া নৌরুটে একটানা ২২ ঘণ্টা পর লঞ্চ ও স্পিড বোট এবং ১১ ঘণ্টা পর ফেরি সার্ভিস চালু হয়েছে। দীর্ঘ এসময় ল , স্পিড বোট ও ফেরি সার্ভিস বন্ধ থাকায় নদী পারাপার হতে আসা যাত্রীদেরকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ’র আরিচা কার্যালয়ের ট্রাফিক বিভাগের সহকারী পরিচালক মো. ফরিদুল ইসলাম জানান,  ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে নৌ-নিরাপত্তা বজায় রাখতে শনিবার বিকাল ৩টা থেকে আরিচা-কাজিরহাট ও পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে চলাচলরত লঞ্চ ও স্পিডবোটসহ সকল ধরণের নৌযান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। রবিবার দুপুর সাড়ে ১২টার ঘুর্ণিঝড় দুর্বল হয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পুণরায় নৌযান চলাচলে জন্য নিদের্শ দেয়া হয়েছে।

এতে প্রায় একটানা ২২ঘন্টা বন্ধ থাকার পর উক্ত নৌ রুটে ল , স্পিড বোটসহ সকল ধরনের নৗযান চলাচল শুরু হয়েছে।

বাংলাদেশ অভ্যান্তরিন নৌপরিবহন করপোরেশন বিআইডবিøউটিস’র ডিজিএম জিল্লুর রহমান জানান, ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে দুর্ঘটনার এড়াতে শনিবার রাত ১০টার দিকে ঝড়ো বাতাতে মাঝ পদ্মায় প্রবল ঢেউয়ের সৃষ্টি হয়। এসময় স্বাভাবিক ফেরি চলাচল মারাত্মকভাবে ব্যহত হয়। দুর্ঘটনা এড়াতে দীর্ঘ ১১ ঘন্টা পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। রবিবার সকাল ৯টার দিকে ঝড়ো বাতাস ও পদ্মায় ঢেউ কমে গেলে আবার ফেরি চলাচল শুরু হয়। বর্তমানে এ নৌরুটে ছোট-বড় মিলে ১৬টি ফেরি দিয়ে যানবাহন চলাচল করা হচ্ছে।

একটানা ১১ঘন্টা ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় উভয় পাড়ে আটকা পড়েছে শত শত যানবাহন ও হাজার হাজার যাত্রী। যাত্রী দুর্ভোগ লাঘব করতে অগ্রাধিকার ভিত্তিত্বে যাত্রীবাহী বাস, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস পারাপার করা হচ্ছে বাল জানান তিনি।
এদিকে কিছু অসাধু ইঞ্জিন চালিত অবৈধ স্যালো নৌকার মালিকরা নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও সরকারের নিদের্শ অমান্য করে রবিবার সকালেও আরিচা-কাজিরহাট নৌরুটে যাত্রী বোঝাই করে জীবনের ঝুকি নিয়ে আরিচা থেকে কাজির হাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যেতে দেখা গেছে।

শাহজাহান বিশ্বাস/মানিকগঞ্জ