প্রতিটি সিনেমায় ২০ বারের অধিক চুমু খেয়েছেন ইমরান হাশমি। ছবি: সংগৃহীত

ইমরান হাশমি বলিউডের ‘সিরিয়াল কিসার’ হিসেবে পরিচিত। তার অভিনীত প্রতিটি সিনেমায় তিনি অন্তত ২০ বারের অধিক চুমু খেয়েছেন নায়িকাদের। ১৭ বছর যাবত তিনি বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের এই ইমেজ ধরে রেখেছেন সাবলীলভাবে। কিন্তু এখন তিনি নিজের এমন ইমেজ নিয়ে বিরক্ত। আসন্ন মুক্তি পেতে যাওয়া ‘হোয়াই চিট ইন্ডিয়া’ সিনেমার এক সাক্ষাৎকারে ইমরান জানালেন, চুমু খেতে খেতে ‘ক্লান্ত’ হয়ে পড়েছেন তিনি!

এই প্রসঙ্গে ইমরান বললেন, ‘কেউ আমার যন্ত্রণা বোঝে না। চুমু খেতে এখন আমার বিরক্ত লাগে। ১৭ বছর একই কাজ করা দুঃসাধ্য। প্রতি সিনেমায় ২০টা করে চুমু খেয়ে আমার ঠোঁট ফুলে গেছে।’ তবে একই সঙ্গে তার নামের সঙ্গে জুড়ে যাওয়া ‘সিরিয়াল কিসার’ পদবীটা যে একটা সময়ে পছন্দ করতেন সেটাও স্বীকার করলেন তিনি।

ইমরান বলেন, ‘আমি আমার ওই ইমেজের জন্য যে কোনো সুবিধা পাইনি, এমন নয়। শুধু এই কারণের জন্য আমার একাধিক সিনেমা ব্যবসা সফল হয়েছে। এভাবেই একজন অভিনেতাকে একটা মোড়কের মধ্যে ফেলে দেয় দর্শক। কিন্তু পছন্দ করি বা না করি, এই ইমেজ নিঃসন্দেহে আমাকে আনন্দ দিয়েছে।’

২০০৩ সালে ‘ফুটপাত’ ছবি দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করলেও ‘মার্ডার’ ছবিতে ‘সানি’ চরিত্রটাই জনপ্রিয়তা দিয়েছে ইমরানকে। আর সেই থেকেই তাকে ওইভাবেই দেখতে অভ্যস্ত হয়ে পড়ে দর্শক। তবে ২০১১ সালে ‘ডার্টি পিকচার’ সিনেমার পর থেকে একটু অন্য ধরনের চরিত্রে ভাবা হয় ইমরানকে। আসন্ন ছবি ‘হোয়াই চিট ইন্ডিয়া’তেও তাকে এক ব্যবসায়ীর চরিত্রে দেখা যাবে, যে নিজের বিবেককে বিসর্জন দিয়ে শিক্ষা ব্যবস্থাকে বিক্রি করে দিচ্ছেন একটু একটু করে। সিনেমাটি মুক্তি পাবে আসন্ন ২৫ জানুয়ারি।

এদিকে সারা আলি খানের সঙ্গে অভিনয় করতে চান বলে জানান ইমরান। তিনি জানান, ‘সিম্বা’য় সারা যেমন অভিনয় করেছেন, তার থেকে অনুপ্রাণিত তিনি। নিজে ‘সিম্বা’ দেখেননি বটে। কিন্তু তার পরিচিতরা অনেকেই রোহিত শেঠির এই সিনেমা দেখেছেন। সেই কারণেই সাইফ-কন্যা সারা আলি খানের সঙ্গে তিনি অভিনয় করতে চান বলে জানান ইমরান। যদিও ইমরানের ওই বক্তব্যের প্রেক্ষিতে সারা কিন্তু এখনও কোনও মন্তব্য করেননি।

সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে

আজকের পত্রিকা/সিফাত