ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের মামলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদের জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। ১৩ অক্টোবর রবিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলাম শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় পরবর্তী ধার্য তারিখ পর্যন্ত আসামিকে এ জামিন দেওয়া হয়েছে।

এ দিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক নূরে আলম মামলার সুষ্ঠু তদন্তে জন্য ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আসামিকে আদালতে হাজির করেন। আসামি পক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন শুনানি করেন। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আজাদ রহমান জামিনের বিরোধিতা করে রিমান্ডের দাবি করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় পরবর্তী ধার্য তারিখ পর্যন্ত জামিন মঞ্জুর করেন।

গতকাল ১২ অক্টোবর শনিবার রাতে বিমানবন্দর এলাকা থেকে মেজর (অব.) হাফিজকে গ্রেফতার করা হয়। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) পল্লবী জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) শেখ মো. শামীম জানান, মেজর (অব.) হাফিজ সরকারি সংস্থার ভূমিকা সম্পর্কে মিথ্যা, বিভ্রান্তিকর ও বানোয়াট তথ্য ইমেইলে পাঠানোয় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। র‌্যাব-৪-এর এসআই আবু সাঈদ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

এদিকে, হাফিজ উদ্দিনকে গ্রেফতারের নিন্দা জানিয়েছে বিএনপি। দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এই ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে হাফিজ উদ্দিন আহমেদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছেন।

আজকের পত্রিকা/কেএফ/সিফাত