চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে দারুল উলুম আহমাদিয়া কামিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী শিপার (১৭) আগুনে দগ্ধ হয়ে মারা গেছে।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিপাকে রবিবার সন্ধ্যায় মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

শনিবার বিকালে বসত ঘরে আগুনে দগ্ধ হন শিপা। প্রথমে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে তাকে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে অবস্থার অবনতি ঘটলে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

শিপার মামা মোস্তফা কামাল বলেন, ভাগ্নিকে বাঁচানো গেলো না। ডিম ভাজতে গিয়ে রান্না ঘরের গ্যাসের আগুন থেকে তার শরীর পুড়ে যায়।

শিপার গ্রামের বাড়ি হাজীগঞ্জ উপজেলার ৬ নম্বর বড়কুল পূর্ব ইউনিয়নের কাইজাঙ্গা গ্রামে। তার বাবা দেলোয়ার হোসেন প্রবাসী। তারা হাজীগঞ্জ পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ট্রাকরোডে একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক অংশু পাল বলেন, ‘আগুনে মেয়েটির শরীর প্রায় ৭০-৮০ ভাগ পুড়ে গেছে।

হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছে।