পিচের রাস্তার উপর চলছে ইটের সোলিংয়ের কাজ। সাতক্ষীরার কালিগজ্ঞ উপজেলা সদরের ফুলতলা মোড়ে দেখা মেলে সড়কে এমন চিত্রের। উপজেলা প্রশাসনের তত্বাবধায়নে পাকা রাস্তার উপর বসানো হচ্ছে ইট। কালিগজ্ঞ হাসপাতালেও প্রবেশের উপায় নেই। তবে আপতত সড়কগুলো সচল রাখার চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

কালিগজ্ঞের স্থানীয় বাসিন্দা ইসরাত আলী জানান, কালিগঞ্জ-বাশতলা রোড, হাসপাতাল রোড, কালিগঞ্জ-কৃষ্ণনগর রোড, বাশতলা-ভেগীর হাটখোলা রোড, কালিগঞ্জ ফুলতলা-নাজিমগঞ্জ রোড এসব সড়কগুলোর একেবারেই বেহাল অবস্থা। চলাচলের উপযোগী নেই। পাকা রাস্তার উপর দেওয়া হচ্ছে ইটের সোলিং। কালিগজ্ঞ হাসপাতালে প্রবেশের উপায় নেই।
তিনি আরও জানান, কালিগজ্ঞ উপজেলার তারালী, নলতা, ভাড়াসিমলা ও চম্পাফুল এই চারটি ইউনিয়ন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা.আ.ফ.ম রুহুল হক এমপির এলাকা। ধলবাড়িয়া, মথুরেশপুর, রতনপুর, মৌতলা, কুশোলিয়া, কৃষ্ণনগর, বিষ্ণপুর ও দক্ষিন শ্রীপুর ইউনিয়নগুলো এমপি জগলুল হায়দারের এলাকা। স্থানীয় রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে সড়কে উন্নয়ন হচ্ছে না বলে অভিযোগ এই বাসিন্দার।

তবে এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন দাবি করে কালিগজ্ঞ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরদার মোস্তফা শাহীন বলেন, রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে সড়কের কাজ হচ্ছে না এমন অভিযোগ সঠিক নয়।

তিনি বলেন, একেবারেই লাজুক সড়কগুলো আপাতত চলাচল উপযোগী রাখার জন্য উপজেলা প্রশাসনের তত্বাবধায়নে ইট বসানো হচ্ছে। অল্পদিনের মধ্যেই ফুলতলা সড়ক ও হাসপাতাল সড়কটি নতুন করে পাকা রাস্তা হিসেবে সংস্কার হবে। এছাড়া বাকি খারাপ সড়কগুলো পর্যায়ক্রমে সংস্কারের আওতায় আসবে।
চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়া সড়কগুলো দ্রুতই সংস্কার করা হবে জানিয়ে সাতক্ষীরা-৩ আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ.ফ.ম রুহুল হক বলেন, সড়কের অবস্থা এতটা বেহাল সেটা আমাকে কেউ অবহিত করেনি। ইজ্ঞিনিয়ারের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আজকের পত্রিকা/সাতক্ষীরা প্রতিনিধি