হার্ডকোর গেমারদের জন্যে সবচেয়ে উপযুক্ত স্মার্টফোন তৈরির প্রয়াসে ‘গেম কালার প্লাস’ এবং ‘ডুয়েল ওয়াইফাই প্রযুক্তি’ নিয়ে এলো গ্লোবাল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো।

প্রতিটি গেমের গ্রাফিকসের মান উন্নত করা, ইন্টারনেট সংযোগের গতি বৃদ্ধি এবং বিভ্রাটহীন নেটওয়ার্ক পরিবর্তনের সুবিধা সমৃদ্ধ এই প্রযুক্তি দুটি স্মার্টফোন গেমিং অভিজ্ঞতায় আনতে পারে যুগান্তকারী পরিবর্তন। স্মার্টফোনে গেমিং অভিজ্ঞতা উন্নত করার প্রয়াসে গ্লোবাল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো এবং কোয়ালকম যৌথভাবে তৈরি করেছে ‘আল্ট্রা-রিয়েলিস্টিক অগমেন্টেড ইমেজিং’ প্রযুক্তি, যা স্মার্টফোনের ডিসপ্লেকে করবে আরো উন্নততর। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন এলিট এবং স্ন্যাপড্রাগনের ‘সেলফ-অ্যাডাপটিভ’ প্রযুক্তির সমন্বয়ে তৈরি ‘গেম কালার প্লাস’ উল্লেখযোগ্য হারে গেমিং ভিজ্যুয়ালের মান উন্নত করতে সক্ষম। বিশেষ করে গেমিং সিনগুলোর কালার স্যাচিউরেশন এবং কনট্রাস্টের সুক্ষ বিষয়গুলোকে উন্নতর করবে নতুন এই প্রযুক্তি।‘গেম কালার প্লাস’ প্রযুক্তির সহায়তায় গেমগুলো অপো স্মার্টফোনগুলোর ডিসপ্লের সাথে দারুণভাবে মানিয়ে নেবে, ফলে অপো ব্যবহারকারীরা পাবেন উন্নতর ভিজ্যুয়াল অভিজ্ঞতা। এছাড়াও ‘গেম কালার প্লাস’ এ থাকছে অপটিমাইজড পাওয়ার সেভিং এবং ব্যাটারি-লাইফ দীর্ঘস্থায়ী রাখার ফিচার।
‘গেম কালার প্লাস’ এর পাশাপাশি ‘কালার ওএস ৬’ চালিত স্মার্টফোনগুলোর জন্যে অপো নিয়ে এসেছে দ্বৈত ওয়াইফাই প্রযুক্তি। নতুন এই ফিচারযুক্ত স্মার্টফোনগুলো দুটো ভিন্ন ওয়্যারলেস নেটওয়ার্কে একত্রে সংযোগ স্থাপনে
সক্ষম হবে। এর মাধ্যমে স্মার্টফোনে ইন্টারনেট সংযোগের গতি বেড়ে যাবে উল্লেখযোগ্য হারে। ফলে ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে কিংবা ইন্টারনেটে গেমিংয়ের অভিজ্ঞতা হবে আরও উন্নত।

দ্বৈত ওয়াইফাই মূলত দুধরণের অবস্থার প্রেক্ষিতে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা পালন করবে। প্রথমত যদি কোন একটি নেটওয়ার্ক দূর্বল বলে চিহ্নিত হয়, সেক্ষেত্রে এই প্রযুক্তিটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দ্বিতীয় নেটওয়ার্কে সংযোগ স্থাপন করবে। আর দ্বিতীয় ভূমিকাটি হবে ডাউনলোডের ক্ষেত্রে দুটি নেটওয়ার্কের সমন্বয়ে ডাউনলোড গতি বৃদ্ধির ক্ষেত্রে।

নতুন এই প্রযুক্তির মাধ্যমে বাফারিংমুক্ত ভিডিও, কোন প্রকার বিভ্রাট ছাড়াই অনলাইন গেমিং এবং অন্যান্য

যেকোন কাজের ক্ষেত্রেও দ্রুততর ইন্টারনেট অভিজ্ঞতা মিলবে দ্বৈত ওয়াইফাই প্রযুক্তির বদৌলতে।

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো এর ক্রেতাদের শিল্প ও উদ্ভাবনী প্রযুক্তির মিশেলে তৈরি পণ্য সরবরাহের জন্যে একটি নিবেদিত প্রতিষ্ঠান। তারুণ্য, নতুন ট্রেন্ড/প্রবণতা সৃষ্টি আর সৌন্দর্যের প্রতীক একটি ব্র্যান্ড হিসেবে
ডিজিটাল জীবনযাত্রার আরো অসাধারন অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে অপো বরাবরই তার গ্রাহকদের জন্যে নিয়ে আসে সর্বোত্তম সেবা দিতে সক্ষম ইন্টারনেট অপটিমাইজড প্রোডাক্ট। এই ব্র্যান্ডের হাত ধরেই সূচনা হয় ‘সেলফি বিউটিফিকেশন’ এর এক নতুন যুগ। স্মার্টফোন জগতে নিজেদের এক ভিন্ন ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠায় ‘অপো’ নিয়ে এসেছে ‘মোটোরাইজড রোটেটিং’ ক্যামেরা, আল্ট্রা এইচডি ফিসার, ৫এক্স ডুয়াল ক্যামেরা জুম প্রযুক্তি। ২০১৬ সালে ‘অপো’র সেলফি-বিশেষজ্ঞ খ্যাত ‘এফ’ সিরিজ বাজারে আসার পরপরই স্মার্টফোন জগতে সেলফি তোলার প্রবণতা সৃষ্টিতে অগ্রগ্রামী ভূমিকা রাখে অপো। ২০১৭ সালে আইডিসি এর র‍্যাংকিং অনুসারে অপো বিশ্বের চতুর্থ সেরা স্মার্টফোণ ব্র্যান্ড হিসেবে নির্বাচিত হয়। বর্তমানে ৪০টি দেশে ২০ কোটির অধিক গ্রাহক আর ৪,০০,০০০ এর অধিক স্টোর আর বিশ্বজুড়ে ৪টি রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের মিশেলে বিশ্বজুড়েই তরুণদেরকে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে সর্বোৎকৃষ্ট অভিজ্ঞতা দিয়ে চলেছে অপো।

আজকের পত্রিকা/এসএমএস