শানাইরে দেবী শানু ও দেবাশীষ বিশ্বস। ছবি: সংগৃহীত

আজ সরস্বতী পূজা। সরস্বতী বিদ্যা ও সংগীতের দেবী। সকাল থেকেই সনাতন ধর্মের সবাই পরিবার পরিজনদের সাথে পূজামণ্ডপগুলোতে যাচ্ছেন। ছোটদের জন্য বিদ্যা প্রার্থনা করছেন। মণ্ডপে যাচ্ছেন তারকারও। আর পূজার দিনে আজকের পত্রিকার সাথে কথা বলেন শানাইরে দেবী শানু ও দেবাশীষ বিশ্বাস। কথা হয় তাদের সাথে পূজা ও বিদ্যা দেবী সরস্বতীর আগমন নিয়ে।

জনপ্রিয় টেলিভিশন অভিনেত্রী শানাইরে দেবী শানু একমাত্র ছেলে ও ননদকে নিয়ে ঘুরে আসেন পূজা মণ্ডপে। বিদ্যা দেবীর আগমনে তার কাছে কী চাওয়া হলো এমন প্রশ্নের উত্তরে শানু বলেন, ‘আমি চাই বিশ্বের সকল মানুষের বিবেক ও বোধ জাগ্রত হয়। পাশাপাশি জ্ঞানের আলোটা থাকা জরুরি। যে জ্ঞান দিয়ে মানুষ মানুষের পাশে হাত বাড়িয়ে দাঁড়াতে পারবো।

এদিকে সরস্বতীর কাছে বাড়িতেই সকল আবদার চেয়ে নিয়েছেন অভিনেতা উপস্থাপক ও নির্মাতা দেবাশীষ বিশ্বাস। তিনি বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই সরস্বতী পূজার সাথে একটা সম্পর্ক ছিল। কারণ এই পূজা এলেই স্কুল ছুটি হতো। আমরা দেবীর পায়ে কলম-খাতা নিবেদন করতাম যাতে ভালো মার্ক পাওয়া যায়। যখন বড় হলাম তখন চলচ্চিত্রের পাণ্ডুলিপি জমা দিতে লাগলাম। যাতে কাজটা ভালো হয়। দর্শক ভালোভাবে নেয়।’

আমরা অর্গানিক লেভেলে বিদ্যা অর্জন করেছি জানিয়ে তিনি আরো বলেন, ‘এখন বইপুস্তকের বাইরেও অনেক মাধ্যম আছে বিদ্যা অর্জন করার। আমাদের বর্তমান জেনারেশন বিদ্যাবুদ্ধিতে এগিয়ে যাবে এটাই স্বাভাবিক। আমি দেবীর পায়ে খাতা-কলম নিবেদন করেছি আমার ছেলেও এখন সেটা করে। এখন হাতের কাছে গুগল, ইউটিউব ও ফেসবুক আছে। তো এগুলোর মাধ্যেমে আমাদের বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রজন্ম আরো এগিয়ে বলে দেবাশীষ বিশ্বাস বিশ্বাস করেন।