তারায় তারায় খচিত সেই কাতার দলটির বিপক্ষে খেলা মানেই তো স্বপ্নের মতো কিছু। আজ সেই ঐতিহাসিক ম্যাচ।

স্বপ্নের এই ম্যাচে উজাড় করে দেওয়ার প্রত্যয় জামাল ভূঁইয়াদের। এশিয়ার জায়ান্টদের হারানো অসম্ভব; কিন্তু স্বপ্নের জয়গান এখন বাংলাদেশ শিবিরে। ২০২২ বিশ্বকাপ বাছাই ও ২০২৩ এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে আজ কাতারের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

গত এশিয়ান গেমসে কাতারকে হারিয়ে ইতিহাস গড়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছিল বাংলাদেশ। সেটা ছিল অনূর্ধ্ব-২৩ দল। শুধু সে জয়টিই নয়, বয়সভিত্তিক আসরে ২০১৭ সালে এএএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইপর্বে মধ্যপ্রাচ্যের এ দেশটিকে হারানোর সুখস্মৃতি আছে। ফুটবলে কাতারের বিপক্ষে গল্প করার মতো এ দুটি জয়ই আছে।

ফেলিক্স সানচেজের দলের বিপক্ষে অতীতে চারবার মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। ২০০৬ সালে এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বের দুই লেগে হেরেছিল। তবে ১৯৭৯ সালের ১০ জানুয়ারি ঢাকায় এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে এই কাতারকে ১-১ গোলে রুখে দিয়েছিল লাল-সবুজের দলটি। চল্লিশ বছর আগের গল্পটি নতুন করে লেখার স্বপ্ন বাংলাদেশের। গতকাল ম্যাচ-পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে কোচ জেমি ডেও জয়ের কথা বলেছেন, ‘আমরা জানি ম্যাচটি কঠিন। তবে সবার মতো আমরাও চাই ম্যাচটি জিততে। ভুটানের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ জিতে আমরা খুবই আত্মবিশ্বাসী। তাদের দুর্দান্ত খেলোয়াড় আছে। তারা এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন।