দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী ডা. মোহাম্মদ এনামুর রহমান। ছবি : সংগৃহীত

কক্সবাজারে টেকনাফের ক্যাম্পগুলোতে রোহিঙ্গারা যে পরিমাণ সহায়তা পাচ্ছেন, স্থানীয়রাও সমপরিমাণ সহায়তা পাবেন বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী ডা. মোহাম্মদ এনামুর রহমান।  ২৩ মে বৃহস্পতিবার দুপুরে উখিয়ার মধুরছড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুর্যোগ মোকাবিলা বিষয়ক এক মহড়ায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী ডা. মোহাম্মদ এনামুর রহমান বলেন, ‘আন্তর্জাতিক সংস্থার দেওয়া ৫২ শর্তের কারণে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর করা যাচ্ছে না। তবে সরকারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।’

সশস্ত্র বাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘জাতির যেকোনও দুর্যোগে সেনাবাহিনী আত্মনিয়োগ করতে প্রস্তুত আছে।’

আসন্ন বর্ষা মৌসুমকে সামনে রেখে রোহিঙ্গাদের যেকোনও দুর্যোগ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর রামু-১০ পদাতিক ডিভিশিনের ব্যবস্থাপনায় এ মহড়া অনুষ্ঠিত হয়।

মহড়ায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  সশস্ত্র বাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ সচিব শাহ কামাল। উপস্থিত ছিলেন, রামু সেনানিবাসের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং মেজর জেনারেল মোহাম্মদ মাইনুল্লাহ চৌধুরীসহ সামরিক ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা। মহড়ায় সেনাবাহিনী, বিজিবি, আরআরআরসি কার্যালয়, পুলিশ, র‌্যাব, দমকল বাহিনী, রেডক্রিসেন্ট সোসাইটিসহ বিভিন্ন সংস্থার ১৪শ’ উদ্ধারকর্মী অংশ নেন।

আজকের পত্রিকা/আ.স্ব/