শনিবার সকালে চন্দ্রশেখর সুনকারা, লাবণ্য সুনকারা (৪১) ও তাঁদের দুই ছেলে যাদের বয়স ১৫ বছর ও ১০ বছর— সকলের দেহ পাওয়া গিয়েছে গুলিবিদ্ধ অবস্থায়। ছবি : সংগৃহীত

৪৪ বছরের প্রবাসী ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী নিজের স্ত্রী ও দুই ছেলেকে খুন করে নিজে আত্মহত্যা করেছেন।

পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আইওয়াতে। ওয়েস্ট ডেস ময়নেস পুলিশ বিভাগ, যারা এই ব্যাপারে তদন্ত করছে, তারা রবিবার ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরে এই সিদ্ধান্তে এসেছে।

শনিবার সকালে চন্দ্রশেখর সুনকারা, লাবণ্য সুনকারা (৪১) ও তাদের দুই ছেলে যাদের বয়স ১৫ বছর ও ১০ বছর— সকলের দেহ পাওয়া গিয়েছে গুলিবিদ্ধ অবস্থায়।

পুলিশ জানাচ্ছে, ওই বাড়িতে আরও চারজন আত্মীয় অতিথি হিসেবে থাকেন। তাদের মধ্যে দু’জন প্রাপ্তবয়স্ক ও দু’জন শিশু। চন্দ্রশেখর ও বাকিদের দেহগুলি আবিষ্কারের পরে ওই আত্মীয়দের একজন ছুটে বাইরে বেরিয়ে যান। তিনি একজন পথচলতি ব্যক্তিকে বিষয়টি সম্পর্কে জানান। ওই ব্যক্তি ৯১১-তে ফোন করেন।

পুলিশ বিবৃতিতে জানিয়েছে, মৃতদেহ দেখে বোঝা গিয়েছে, লাবণ্য সুনকারা ও তার দুই ছেলেকে খুন করা হয়েছে। চন্দ্রশেখর সুনকারার মৃত্যুর ভঙ্গি থেকে পরিষ্কার তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

চন্দ্রশেখর, যিনি চন্দ্র নামেই বেশি পরিচিত ছিলেন, তার বাড়ি অন্ধ্রপ্রদেশে। আইওয়ার জন নিরাপত্তা বিভাগ জানিয়েছে তিনি একজন তথ্যপ্রযুক্তির কর্মী ছিলেন টেকনোলজি সার্ভিসেস ব্যুরোতে।

আজকের পত্রিকা/এমএইচএস