রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পদে নিয়োগ পেয়েছেন রূপালী ব্যাংকের এমডি ও সিইও মো. আতাউর রহমান প্রধান।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ আজ মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) তার নিয়োগের বিষয়ে আদেশ জারি করেছে। আতাউর রহমান ১৯৮৪ সালে অর্থনৈতিক বিশ্লেষক হিসেবে সোনালী ব্যাংকে যোগদানের মাধ্যমে তার ব্যাংকিং ক্যারিয়ার শুরু করেন। সোনালী ব্যাংকে থাকা অবস্থায় বিভিন্ন গ্রেডে পদোন্নতি পেয়ে সর্বশেষ উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

রূপালী ব্যাংকে ২০১৬ সালের আগস্ট মাসে ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে যোগদানের আগে তিনি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেন। সোনালী ব্যাংকে চাকরিরত অবস্থায় তিনি বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের একমাত্র স্বয়ংসম্পূর্ণ ব্যাংক সোনালী ব্যাংক ইউকে লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী হিসেবে তিন বছরের অধিক সময়ে দায়িত্ব পালন করেন।

দীর্ঘ ব্যাংকিং জীবনে সোনালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিভাগ এবং স্থানীয় কার্যালয়ের মহাব্যবস্থাপকসহ মাঠ পর্যায়েও সততা, নিষ্ঠা এবং অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন।

আতাউর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগ থেকে এম কম ডিগ্রি লাভ করেন। একই সঙ্গে কৃতিত্বের সঙ্গে ডিএআইবিবি ডিগ্রি অর্জন করেন। চাকরি জীবনে আমেরিকা, অষ্ট্রেলিয়া, দুবাই, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, চীন, মালয়েশিয়া, ভারত এবং থাইল্যান্ডসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সেমিনার ও প্রশিক্ষণে অংশ নিয়েছেন।

রংপুর বিভাগের এ কৃতি সন্তান লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম থানাধীন বুড়িমারীতে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।

২০১৮ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটে রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে তিনি সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচিত হন।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের একই আদেশে সোনালী ব্যাংকের এমডি উবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদকে রূপালী ব্যাংকের এমডি ও সিইও হিসাবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে এবং অগ্রণী ব্যাংকের এমডি মোহাম্মদ সামস-উল ইসলামকে স্বস্থানেই বহাল রাখা হয়েছে।

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ আব্দুল আওয়ালের সই করা এই আদেশ ব্যাংক তিনটির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান বরাবর পাঠানো হয়েছে। এর আগে ২০১৬ সালের ১৬ আগস্ট তারা এমডি হিসেবে প্রথম নিয়োগ পেয়েছিলেন।