ফেনীর সোনাগাজীতে একটি দেশীয় তৈরী বন্দুক-গুলি ও ১শ৫৬ পিস ইয়াবাসহ মো: সাইফুল ইসলাম (৩৮) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাতে উপজেলার ভাদাদিয়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি উপজেলার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের সুজাপুর এলাকার ছিদ্দিক আহম্মদের ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোনাগাজী মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ছায়েদের রহমানের নেতৃত্বে উপজেলার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের ভাদাদিয়া এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম সারওয়ারের বাড়ীর সামনে থেকে ২০ পিস ইয়াবা বডিসহ মাদক ব্যবসায়ী সাইফুলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে তার কাছে আরও ইয়াবা বড়ি আছে বলে পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশের দুটি দল সাইফুলকে নিয়ে তার বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে ঘরের বিভিন্ন স্থান থেকে আরও ১শ ৩৬ পিস ইয়াবা এবং রান্নাঘর থেকে একটি দেশীয় তৈরী এক নলা বন্দুক ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে। অভিযানে নেতৃত্বদেন সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মঈন উদ্দিন আহমেদ, পরিদর্শক (তদন্ত) মো. খালেদ হোসেন।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মঈন উদ্দিন আহমেদ বলেন, অস্ত্র-গলি ও ইয়াবাসহ একজনকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে সাইফুলের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে থানায় পৃথক দুটি মামলা রুজু করা হয়েছে।

তিনি বলেন, জিজ্ঞাসাদে গ্রেফতার সাইফুল তার কাছ থেকে উদ্ধার করা অস্ত্র-গুলিগুলো উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ হোসেন তাকে রাখতে দিয়েছিল বলে জানায়। এছাড়া ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায় সহায়তাকারী বেশ কয়েকজনের নাম পুলিশকে জানায়। সাইফুলের দেওয়া তথ্যগুলো খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে ফেনীর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদের গ্রেফতার সাইফুল নিজেকে যুবলীগকর্মী দাবী করায় এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আজিজুল হক বলেন, পুলিশের হাতে অস্ত্রসহ গ্রেফতার সাইফুল নিজেকে যুবলীগকর্মী হিসেবে দাবী করলেও প্রকৃত পক্ষে তিনি যুবলীগের কেউ নন। তার কোথাও কোন পথপদবী নেই। তিনি তাকে চেনেনও না।

আলী হায়দার মানিক/ফেনী