সেরা করদাতা ঠাকুরগাঁওয়ের সাদেকুল ইসলাম

রংপুর সিটি করপোরেশন ও জেলা ভিত্তিক শ্রেষ্ঠ করদাতা ক্যাটাগরির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে সম্মাননা পেয়েছেন ঠাকুরগাঁওয়ের কৃতি সন্তান বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এএইচ,এম সাদেকুল ইসলাম।

গত ১৩ নভেম্বর রংপুর জেলা পরিষদ কমিউনিটি সেন্টার আয়োজিত অনুষ্ঠানে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কর্তৃক ঘোষিত শ্রেষ্ঠ করদাতা ক্যাটাগরিতে ২০১৮-২০১৯ কর বছরে সাদেকুল ইসলামকে সম্মাননা সনদ ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

সাদেকুল ইসলামের হাতে সম্মাননা ও ক্রেস্ট প্রদান করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ মোস্তাফিজার রহমান। পরে অনুষ্ঠানে তিনি বক্তব্য প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (আন্তর্জাতিক কর) আরিফা শাহানা, রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য, রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, রংপুর কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের কমিশনার শওকত আলী সাদী, রংপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটু, রংপুর উইমেন্স চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আনোয়ারা ফেরদৌসি পলি, রংপুর মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মোঃ রেজাউল ইসলাম মিলন, রংপুর ট্যাকসেস বার এসোসিয়েশনের সভাপতি মাসুম খান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রংপুর কর অঞ্চলের কর কমিশনার মোঃ আবদুল লতিফ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন রংপুরের অতিরিক্ত কর কমিশনার শেখ মোঃ মনিরুজ্জামান।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি সম্মাননা ও ক্রেস্ট প্রদান বিষয়ক অনুষ্ঠানের ভুয়সী প্রশংসা করেন। তাঁরা তাদের বক্তব্যে বলেন যে, এই ধরনের অনুষ্ঠান করদাতাদের জন্য প্রণোদনা হিসেবে কাজ করে এবং জাতীয় রাজস্ব বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বক্তব্য শেষে অতিথিরা রংপুর কর অঞ্চল-রংপুর এর অধিক্ষেত্রাধীন রংপুর সিটিকর্পোরেশন, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, নীলফামারী, পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁও জেলায় মোট ৭টি জেলা হতে সর্বোচ্চ ও দীর্ঘমেয়াদী, তরুণ ও মহিলা সহ মোট ৫৬ জন করদাতার মাঝে সম্মাননা সনদ ও ক্রেস্ট বিতরণ করেন।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে সম্মাননা প্রাপ্ত ঠাকুরগাঁওয়ের সাদেকুল ইসলাম বলেন, সেরা করদাতা হিসেবে সম্মাননা পেয়ে গর্বিত অনুভব করছি। কারণ দেশের একজন নাগরিক হিসেবে আমি আমার দায়িত্বটুকু পালন করেছি আর পুরস্কার পরবর্তীতে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। প্রত্যেক নাগরিকের উচিত সঠিক সময়ে সঠিকভাবে কর দেওয়া।

রহিম উল আলম খোকন/ঠাকুরগাঁও