সুইস ব্যাংকে যেসব ভারতবাসীর অর্থ গচ্ছিত রয়েছে, তার প্রথম তালিকা ভারতের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। সোমবার সুইজারল্যান্ড সরকারের তরফ থেকে এ কথা জানানো হয়েছে। এএফপি।

এ বছর জুলাই মাসে এ সম্পর্কিত খবর প্রথম প্রকাশ হয়েছিল ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে। খবরে জানানো হয়েছিল, অটোমেটিক এক্সচেঞ্জ অব ইনফর্মেশন (এইওআই) কর্মসূচির আওতায় ভারতের যেসব বাসিন্দাদের সুইস ব্যাংকে বর্তমানে অ্যাকাউন্ট রয়েছে সেগুলোর আর্থিক তথ্য ভারত সরকারকে দেয়া হবে।

২০১৮ সালে যেসব অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, সেগুলোও দেয়া হবে সরকারকে। পরবর্তী দফায় এ সম্পর্কিত তথ্য ভারতের হাতে আসবে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে।

২০১৬ সালে ভারত ও সুইজারল্যান্ড ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্য আদান-প্রদান সম্পর্কিত চুক্তি স্বাক্ষর করে, যা ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে বলবৎ হয়।

সারা পৃথিবীতেই এ ধরনের তথ্য দেয়া-নেয়া চালু রয়েছে কমন রিপোর্টিং স্ট্যান্ডার্ড নামক পদ্ধতির ওপর ভিত্তি করে। এই পদ্ধতি চালু করেছে অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কোঅপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (ওইসিডি)।

দুটি সুইস এজেন্সির বক্তব্য অনুসারে- এ বছর মোট ৭৫টি দেশকে এ সম্পর্কিত তথ্য দেয়া হচ্ছে, যার একটি ভারত। গত বছর ৩৬টি দেশকে এ ধরনের তথ্য সরবরাহ করা হয়েছিল। ভারতীয়রা কত পরিমাণ সম্পদ সুইস ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে মজুদ করে রেখেছেন, সে সম্পর্কে আলোকপাত করতে পারে এই তথ্য।