জুট মিলস শ্রমিকদের রেলপথ অবরোধ। ছবি: সংগৃহীত

বকেয়া বেতন, মজুরি কমিশন, গ্রাচুইটি এবং পিএফ’র টাকা প্রদানসহ ৯ দফা দাবিতে সীতাকুণ্ডের হাফিজ জুট মিলসের শ্রমিকরা রেলপথ অবরোধ করেছে।

১৪ মে মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় আধঘন্টা ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথ অবরোধ করেন। এ সময় চট্টগ্রামমুখী একটি মালবাহী ট্রেন বার আউলিয়া এলাকার হাফিজ জুট মিলস এর সংলগ্নে আটকা পড়ে। লাগাতার ৯৬ ঘন্টার মিল ধর্মঘটের পাশাপাশি শ্রমিকরা রেলপথ অবরোধ করে। এর আগে দুপুর তিনটায় শ্রমিকরা বিশাল মিছিল নিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে প্রদক্ষিণ করে। এ সময় মহাসড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে আধ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে।
এদিকে টানা ৯৬ ঘন্টা মিল ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিনেও শ্রমিকরা কাজে যোগ দেয়নি। ৯ দফা দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে পূর্ব ঘোষিত ৯৬ ঘন্টার মিল ধর্মঘট চলছে। প্রতিদিনই শ্রমিকরা মিছিল সমাবেশ অব্যাহত রেখেছে। অপ্রীতিকর যে কোনো ধরনের পরিস্থিতি মোকাবেলায় বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।
হাফিজ জুট মিলস এলাকায় সকাল থেকে শিল্প পুলিশ ও সীতাকুণ্ড মডেল থানার বিপুল সংখ্যক পুলিশ অবস্থান করছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সীতাকুণ্ড উপজেলার হাফিজ জুট মিলস, গুল আহম্মদ জুট মিলস, আর আর জুট মিল, গালফ্রা হাবিব এবং এম.এম জুট মিলস এর হাজার হাজার শ্রমিকরা কারখানার বন্ধ রেখে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে।

বাংলাদেশ পাটকল শ্রমিক লীগ ও সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ এই কর্মসূচির আহ্বান করে। শ্রমিকরা জানান, তাদের দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

আজকের পত্রিকা/মেজবাহ খালেদ/সীতাকুন্ড/চট্টগ্রাম/আরকে/সিফাত