পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে চাঞ্চল্যকর সিয়াম হত্যার ১ বছর পরে হত্যার সাথে জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে শোক ও প্রতিবাদ সভা পালিত হয়েছে।

রবিবার দুপুরের দিকে উপজেলার মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের সুলতানাবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে সিয়ামের সহপাঠি ও এলাকাবাসির উদ্যোগে এ শোক ও প্রতিবাদ সভা পালন করা হয়।

শোক সভায় উপস্থিতিরা বলে, হত্যার ১ বছর অতিক্রম হলেও জড়িত অকেকেই রয়েছে ধরা ছোয়ার বাইরে।

এমনকি গ্রেফতারকৃত দের এখন পর্যন্ত কোন প্রকার শাস্তির ব্যবস্থা হয়নি।

সিয়ামের বাবা শাহাজাহান গাজী বলেন, আমার ছেলেকে যারা নিশংস ভাবে হত্যা করেছে তাদের সকলের ফাঁসির দাবি জানাই।

হত্যার মূল হোতা জামাল মেম্বারকে গ্রেফতার করা হয়। কিন্তু হত্যার সাথে জড়িত মোঃ রুহুল আমিন হাওলাদার, শহিদ বিশ্বাস ও জাহিদ হাওলাদার পলাতক রয়েছে। সে সকল আসামিদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে ফাঁসির দাবি জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, গত ২৫ জানুয়ারী ২০১৯ সালে সুলতানাবাদ এলাকায় মাহফিল চলাকালীণ সময় জামাল মেম্বার ৫ম শ্রেণির ছাত্র সিয়ামকে ঝাল মুড়ি খাওয়ানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়। পরে ভাড়াটে খুনি দিয়ে গলাকেটে সিয়ামকে নিশংস ভাবে হত্যা করে ।

পরে সিয়ামের মৃত্যু দেহ আকন বাড়ির পুকুরের পার্শ্বে ধান ক্ষেতে ফেলে রাখে।

ঘটনার পর দিন পুলিশ তাকে উদ্ধার করে আইনগত প্রক্রিয়া শেষ করে।

এব্যাপারে সিয়ামের বাবা বাদী হয়ে মির্জাগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

-জান্নাতুল ফেরদৌস