সিলেটের শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিংকারীদের শাস্তি দাবি

সিলেট নগরীর শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিংকারীদের দৃষ্টান্তমুল শাস্তি দাবি করেছে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ সিলেট জেলা ও মহানগর নেতৃবৃন্দ।

শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) রাতে সিলেট জেলা জমিয়তের প্রচার সম্পাদক মাওলানা সালেহ আহমদ শাহবাগী স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ এ দাবি জানান।

সিলেট জেলা জমিয়তের সভাপতি মাওলানা শায়খ জিয়া উদ্দিন, মহানগর সভাপতি মাওলানা খলিলুর রহমান, জেলার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আতাউর রহমান ও মহানগর সাধারণ সম্পাদক হাফিজ ফখরুľামান বলেন, ‘বাংলাদেশের আধ্যাত্মিক রাজধানী সিলেটের শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিং করে ইসলাম ধর্মের প্রতি ধৃষ্টতা দেখালো একটি মহল। সিলেটের শাহী ঈদগাহ একটি ঐতিহাসিক স্থান। যেখানে প্রতিকুল আবহাওয়া উপেক্ষা করে প্রতিবছর লক্ষাধিক মুসলি­ ঈদের নামাজ পড়তে আসেন। বড় বড় জানাজার নামাজ শাহী ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হয়। এ সকল ধর্মীয় কাজ সম্পাদিত হওয়া এই ঐতিহাসিক ও পবিত্র শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিং হয়েছে তা বিশ্বাস করা কঠিন হলেও একটি স্বার্থান্বেষী মহল পুলিশী প্রহরায় শুটিং করে ফেলেছে।’ নেতৃবৃন্দ সিনেমার শুটিংকারীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি করেন। অন্যথায় সিলেটের ধর্মপ্রাণ মুসলমান তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন দিতে প্রস্তুত রয়েছে।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, ‘সিলেটের শান্তিপ্রিয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে যারা এ কাজ করেছে তারা দেশ ও ধর্মের দুশমন। সিলেটের জনপ্রতিনিধিগণ আজ সিলেট নগরীকে আধুনিক নগরী গড়তে ব্যতিব্যস্ত হয়ে আছেন। অথচ শাহী ঈদগাহের মত একটি ঐতিহাসিক ধর্মীয় ও পবিত্র স্থান আজ যুবক-যুবতিরা আড্ডাখানায় পরিণত করেছে। এসব বেহায়াপনা শাহী ঈদগাহ এলাকা তথা সিলেটের মানুষকে ভাবিয়ে তুলেছে।’