মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে স্বামীকে মারধর করে গৃহবধূকে কয়েক দফায় ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার বিকাল ৫ টায় উপজেলার বাসাইল ইউনিয়নের পলাশপুর গ্রামের ডিসি প্রজেক্টে ঘটনাটি ঘটে।

জড়িত থাকায় সোহেল নামে ১ জনকে এলাকাবাসী আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে।

আটক সোহেল দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার বাঘাপুর গ্রামের ওসমান মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূকে নিয়ে তাঁর স্বামী পলাশপুরের ডিসি প্রজেক্টে ঘুড়তে আসলে সোহেল, মো.নাছির উদ্দিন ও মো. শামীম মিয়া গৃহবধূর স্বামীকে মারধর করে। তারপর গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে এবং মোবাইলে ভিডিও ধারন করে। স্বামী চিৎকার করলে এলাকাবাসী সোহেলকে আটক করে পুলিশে দেয় কিন্তু বাকী দুজন পালিয়ে যায়।

সিরাজদিখান থানার ওসি মো.ফরিদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আমরা ১ জনকে আটক করেছি এবং ধর্ষণের ভিডিও উদ্ধার করেছি।

-আজকের পত্রিকা/মুন্সীগঞ্জ