সিটিজেন ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্টে সিস্টেমের (সিআইএমএস) শুভ উদ্বোধন করলেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। ৯ সেপ্টেম্বর সোমবার ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই শুভ উদ্বোধন করেন।

ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশের যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন এর বাস্তব একটি প্রয়োগ হচ্ছে ডিএমপির সিআইএমএস মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন। আজ থেকে অ্যাপসটি গুগল প্লেস্টোরে পাওয়া যাবে। নাগরিকরা অ্যাপসটি নিজেদের স্মার্ট ফোনে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন।’

ডিএমপি কমিশনার আরও বলেন, ‘নাগরিক তথ্য সংগ্রহ আগে আমরা ম্যানুয়ালি করতাম। থানা পুলিশ বাড়ি বাড়ি গিয়ে নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ করত। পরে সব তথ্য যাচাই-বাছাই করে আমরা সিস্টেমে এন্ট্রি দিতাম। এত লোকবল ও সময় দুইটিই বেশি লাগত। কিন্তু এখন এই অ্যাপসের মাধ্যমে নাগরিকরা নিজেদের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তথ্য দিতে পারবেন। পরে থানার পুলিশের গ্রাউন্ড ভেরিফিকেশন করার পর এই তথ্য সিস্টেমে অন্তর্ভুক্তি করা হবে। তবে এখন ম্যানুয়ালি ও ডিজিটালি এই নাগরিক তথ্য সংগ্রহের কাজ করা যাবে।’

এছাড়া ডিএমপি আরও জানান, ২০১৬ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ করার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়৷ এ পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীর ৭২ লাখ নাগরিকদের তথ্য আমাদের এই সিস্টেমে অন্তর্ভুক্তি করা হয়েছে। যে সিআইএমএস তথ্যভান্ডার তৈরি করা হয়েছে, এর কারণে নগরীতে কেউ নিজের পরিচয় লুকিয়ে বাসা ভাড়া নিতে পারেন এবং বাসা তৈরিও করতে পারেন না। কোনো বাসায় যদি অপরাধ করে অপরাধী পালিয়ে যায়, তাহলে পুলিশ নাগরিক তথ্যভাণ্ডারের মাধ্যমে তাকে সহজেই চিহ্নিত করতে পারে এবং তাকে গ্রেফতার করা যায়।

আজকের পত্রিকা/কেএফ