মাত্র কয়েক ঘণ্টার অবিরাম বর্ষণে হবিগঞ্জ শহরের অধিকাংশ এলাকায় মারাত্মক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। ছবি: সংগৃহীত

মাত্র কয়েক ঘণ্টার অবিরাম বর্ষণে হবিগঞ্জ শহরের অধিকাংশ এলাকায় মারাত্মক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে শহরের রাস্তাঘাট। অনেক অফিস-আদালতসহ বিভিন্ন স্থানে বাড়িঘরেও পানি ঢুকে পড়েছে। এতে মানুষের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে।

শনিবার (১ জুন) ভোররাতের প্রবল বর্ষণে সার্কিট হাউস, পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ বিভিন্ন রাস্তা শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকার রাস্তাঘাটে বৃষ্টির পানি জমে মারাত্মক জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়াও পানিতে তলিয়ে যায় শ্যামলী, মুসলিম কোয়ার্টার, মোহনপুর, শায়েস্তানগর, চৌধুরী বাজার, কর্মকার পট্টি, কালিবাড়ি ক্রস রোডসহ কয়েকটি এলাকার রাস্তাঘাট।

বিভিন্ন স্থানে ড্রেন ডুবে বাসাবাড়িতে পানি ঢুকে পড়ে। জলাবদ্ধতার কারণে মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

পথচারীরা জানান, বিভিন্ন এলাকায় ময়লা ফেলে অসচেতন মানুষ ড্রেন ভরে রাখে। এছাড়া পানি নিষ্কাশনের খাল-ডোবাগুলোও কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি দখল করে বাসাবাড়ি, মার্কেট নির্মাণ করে রেখেছে। বিশেষ করে শহরের পানি নিষ্কাশনের প্রধান রাস্তা বাইপাস সড়কে (পুরাতন রেল সড়ক) রেলের ভূমি, পরিত্যক্ত খোয়াই নদী প্রভাবশালী চক্র দখল করে নেয়ার ফলে এ জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে।

অবিরাম বর্ষণ তো দূরের কথা, সামান্য বৃষ্টি হলেই শহরে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। এভাবে কয়েক বছর চলতে থাকলে বছরের অধিকাংশ সময় পানিতে ডুবে থাকতে হবে শহরবাসীকে।

জলাবদ্ধতা দূরীকরণে কিছু প্রকল্পের কাজ দ্রতই শুরু হবে বলে জানিয়েছেন পৌরসভার ভারপ্র্রাপ্ত মেয়র দিলীপ কুমার দাস।

আজকের পত্রিকা/ফয়সাল ইসলাম/হবিগঞ্জ প্রতিনিধি/এআরকে