ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে কৌশিক গাঙ্গুলীর অভিষেক। ছবি: সংগৃহীত

সাম্প্রতিক ওয়েব জি অরিজিনাল শরতে আজ, কালী এবং দ্যা লাভলী মিসেস মুখার্জীর সাফল্যের পর, জি ফাইভ এ মাসে ‘সাত নম্বর সনাতন সান্যাল’ প্রিমিয়ার করেছে। সিনেমাটি লিখেছেন এবং পরিচালনা করেছেন অন্নপূর্ণা বসু। জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী কৌশিক গাঙ্গুলীর প্রথম ডিজিটাল আবির্ভাবের পাশাপাশি এ সিনেমায় গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাওলী চ্যাটার্জী, শিলাজিৎ মজুমদার, সোহেব ভট্টাচার্য, দেবদূত ঘোষ, বিভাস চক্রবর্তী, অধিকারী কৌশিক এবং সোহম মিত্র।

‘সাত নম্বর সনাতন সান্যাল’ সিনেমাটি ৪৫ বছর বয়সী বিক্রয় প্রতিনিধি সনাতন সান্যালকে ঘিরে নির্মিত কৌতুহল উদ্দীপ্ত হত্যা রহস্য। সনাতনের আত্মবিশ্বাসের অভাব তাকে ব্যক্তিগত ও পেশাগতভাবে হতাশ করে তুলেছিল। এর মধ্যেই তার জীবন ভিন্ন এক দিকে মোড় নেয় যখন চাকরিতে তাকে নিজের নামের ব্যক্তিদের খোঁজার দায়িত্ব দেওয়া হয়। এক একজন সনাতন সান্যালের সাথে দেখা হওয়া তার বিশেষ কিছু প্রাপ্তি বা ত্যাগের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এরপর যতই দিন যেতে থাকে ততই তার গ্রাহকরা একের পর এক অদৃশ্য হয়ে যেতে থাকে। আর এসব ঘটনা তাকে বিশ্বাস, ক্ষতি ও প্রতিশোধের এক ভয়ানক যাত্রার দিকে ঠেলে দেয়।

অভিনয়শিল্পী কৌশিক গাঙ্গুলী বলেন, “নীরবতার শক্তিই সনাতনের নিজের ভেতরের বোঝাপড়ার আলাপচারিতাকে বের করে নিয়ে আসে৤ অন্নপূর্ণা সনাতনের নীরবতার মাধ্যমেই তার কথা প্রকাশ করতে চেয়েছিলেন। আমি যখন অভিনয় করেছি তখন এটাই আমার শক্তি হিসেবে কাজ করেছে। একজন সাধারণ মানুষের এই গল্পকে পৃষ্ঠপোষকতা করার জন্য জিফাইভের প্রযোজকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি৤”

পরিচালক অন্নপূর্ণা বসু বলেন, ‘‘আমি নিশ্চিত ‘সাত নম্বর সনাতন সান্যাল’ সিনেমার দৃশ্যের পর দৃশ্য দর্শকদের নিবিষ্ট করে রাখবে। এটি খুব চমকপ্রদ ও গতিশীল একটি চলচ্চিত্র। বর্তমান সময়ে যেখানে ডিজিটাল বিনোদন খুব দ্রুত বিকশিত হচ্ছে, সেখানে জিফাইভ তার প্লাটফর্মের জন্য খুব ভালো কন্টেন্টে বিনিয়োগ করায় আমরা খুব আনন্দিত। আমরা বিশ্বাস করি এই প্ল্যাটফর্মের ব্যাপক বিস্তারের সঙ্গে সঙ্গে আমাদের সিনেমাও অনেক বেশি দর্শকের কাছে পৌঁছাবে।’’

নতুন এ সিনেমার মুক্তির বিষয়ে জিফাইভ গ্লোবালের প্রধান বাণিজ্যিক কর্মকর্তা অর্চনা আনন্দ বলেন, ‘‘আমাদের প্ল্যাটফর্মে প্রিমিয়ার হওয়া প্রতিটি স্টোরিতে আমরা কন্টেন্টের গভীরতাকে প্রাধান্য দিতে চাই৤ ‘সাত নম্বর সনাতন সান্যাল’ সিনেমাটি আমাদের প্ল্যাটফর্মের কন্টেন্টে ভিন্ন এক মাত্রা যোগ করেছে, এবং আমি নিশ্চিত এটি পুরো বিশ্বের দর্শকদের রোমাঞ্চিত করবে।’’

জি ফাইভ গুগল প্লেস্টোর বা আইওএস অ্যাপ স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে। এই অ্যাপটি স্যামসাং স্মার্ট টিভি, অ্যাপল টিভি, এন্ড্রয়েড টিভি এবং আমাজন ফায়ার টিভিতেও সহজলভ্য। www.ZEE5.com এই ওয়েবসাইট থেকেও জিফাইভ ডাউনলোড করা যাবে৤

জি ফাইভ সম্পর্কে:
একটি শক্তিশালী আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জি এন্টারটেইনমেন্ট এন্টারপ্রাইজ লিমিটেডের দ্বারা চালু হওয়া জি ফাইভ একটি ডিজিটাল বিনোদন গন্তব্য৤ ১২ টি ভাষার (হিন্দি, ইংরেজী, বাংলা, মালায়ালাম, তামিল, তেলেগু, কান্নাদা, মারাঠি, ওরিয়্যা, ভোজপুরী, গুজরাটি এবং পাঞ্জাবী) কনটেন্ট নিয়ে ২০১৮ সালের অক্টোবরে ১৯০ টিরও বেশি দেশে চালু হয় জি ফাইভ৤ বর্তমানে আন্তর্জাতিক আরো পাঁচটি ভাষায় (মালয়, থাই, বাহাসা, জার্মান এবং রাশিয়ান) তাদের কনটেন্ট রয়েছে৤ জি ফাইভে এক লাখ ঘন্টার অন ডিমান্ড কন্টেন্ট রয়েছে এবং ৬০ টিরও বেশি লাইভ টিভি চ্যানেল রয়েছে৤ প্লাটফর্মটি একইসঙ্গে সবচেয়ে ভালো অরিজিন্যালস, সিনেমা এবং টিভি শো, সিনেপ্লেইস, লাইভ টিভি এবং হেল্থ ও লাইফস্টাইল কনটেন্ট দিচ্ছে৤ এটি ১৬ টি নাভিগ্যাশনাল ভাষা, কনটেন্ট ডাউনলোড অপশন, সিমলেস ভিডিও প্লেব্যাক এবং ভয়েস অনুসন্ধানের মতো অভিনব ফিচারস দিচ্ছে৤