সর্বহারা পার্টি এমএল গ্রুপের আ লিক প্রধান পরিচয়ে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের ১১ শিক্ষকের কাছে ৩০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়েছে। এ ঘটনায় সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

সাধারণ ডায়েরীতে উল্লেখ করা হয়েছে, রোববার ও সোমবার কলেজ চলাকালে ০১৯৩৪৫০২৯০৪ ও ০১৯৯৯১৩৯৬৬২ নম্বর থেকে কল করে শিক্ষকদের কাছে চাঁদা দাবি করা হয়। শিক্ষকদের কাছে ফোন করে বলা হয়, আপনি অমুক বলছেন? উত্তর, জ্বী বলছি। অপর প্রাপ্ত থেকে তখন বলা হয়, আমি সর্বহারা পার্টি এমএল গ্রুপের আ লিক প্রধান। আপনি আমাদের লিডারের সাথে সালাম দিয়ে কথা বলুন। পরে চাঁদা দাবি করে হুমকি দেওয়া হয়। এরপর ওই মোবাইল নম্বর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

চরমপহ্নি দলের প্রধান পরিচয়ে যাদের কাছে চাঁদা দাবি করা হয়েছে তারা হলেন, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অধ্যাপক বলাই চন্দ্র ঘোষ, সহযোগী অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, সহযোগী অধ্যাপক নসরুল ইসলাম, সহকারী অধ্যাপক জিয়াউর রহমান, সহকারী অধ্যাপক মোছলেহুল ইসলাম, সহকারী অধ্যাপক মশিউল আজম, প্রভাষক সন্দীপ সানা, আবু রায়হান, ইদ্রিস আলী, মহিতোষ নন্দী, ধ্রুব কুমার ও প্রভাষক সাধান সরকার।

চাঁদা দাবির বিষয়টি নিশ্চিত করে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অধ্যাপক বলাই চন্দ্র ঘোষ বলেন, এ ঘটনায় কলেজের পক্ষ থেকে থানায় সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে। শিক্ষকদের কাছে ৩০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়েছে। টাকা না দিলে ছেলে-মেয়ে অথবা স্ত্রীকে অপহরণ করা হবে।

নম্বর দুটির লোকেশান ও ব্যবহারকরীর পরিচয় শনাক্তে কাজ চলছে জানিয়ে সাতক্ষীরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যেই এ ঘটনার রহস্য উন্মোচিত হবে।

বৈশাখী/সাতক্ষীরা