কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ রুবেলকে মারধরের বিচার চেয়ে মানববন্ধন করেছে বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

রোববার দুপুর ১২ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে মানববন্ধন করে তারা।

মানববন্ধনে বিভগের শিক্ষার্থীরা মারধরের বিচার চেয়ে ‘ক্যাম্পাসে হামলা আর নয়, আর নয়; মেধাবীদের ক্যাম্পাসে কোনো সন্ত্রাসীর জায়গা নেই; আমার ভাই হাসপাতালে ভর্তি কেন প্রশাসন জবাব চাই’ এমন লিখা প্ল্যাকার্ড নিয়ে দাঁড়ায়।

মানববন্ধনে বিভাগের বিভিন্ন ব্যাচের প্রতিনিধিরা বক্তব্য দেন। এসময় শিক্ষার্থীরা বলেন, রুবেলকে মারধরের ৬ দিন পেরিয়ে গেলেও দৃশ্যমান কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। যা খুবই লজ্জাজনক।

শিক্ষার্থীরা ২৪ ঘন্টার সময় বেঁধে দিয়ে বলেন, ‘আগামীকাল (সোমবার) সকাল ১০ টার মধ্যে অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা না নেওয়া হলে কঠোর আন্দোলনে যাওয়া হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন বলেন, আমরা তদন্ত করেছি মারধরের ঘটনার। তদন্ত প্রতিবেদন তৈরি হয়ে গেছে। রেজিস্ট্রার বরাবর আমরা জমা দেব।

গত সোমবার (১৩ জানুয়ারি) বিকেল ৩ টার দিকে কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সামনে বাংলা বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী নাসির উদ্দীন জিসান গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী রুবেলের উপর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চড়াও হয়। এসময় তার সঙ্গে অজ্ঞতানামা আরও দুই থেকে তিনজন মারধর করে।

পরবর্তীতে বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে চিকিৎসার পাঠায়।

সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসায় সুস্থ হয়। পরে গত মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে অচেতন হলে বিশ্ববিদ্যালয় এম্বুল্যান্স যোগে তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থা খারাপ দেখে মেডিকেল কলেজে ভর্তি করিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

-তসিফ হাসান