অনশনরত প্রেমিকা

পাবনার সাঁথিয়ায় বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে আমরণ অনশন করছে এক কলেজ পড়ুয়া প্রেমিকা। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার নাগডেমড়া ইউনিয়নের সোনাতলা নতুন পাড়া গ্রামের আবুল কাশেমের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। বিয়ে না হলে আত্মহত্যার হুমকি দিচ্ছে ওই প্রেমিকা। প্রেমিকা আসার খবর পেয়ে প্রেমিক হাসান বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

ওই মেয়েটি অভিযোগ করে বলেন, প্রায় তিন বছর ধরে সাঁথিয়া উপজেলার সোনাতলা গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে হাসানের সাথে প্রেমের সম্পর্ক হয় পার্শ্ববর্তী শাহজাদপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজের এইচ এসসি ১মবর্ষের ছাত্রী রোজিনা খাতুনের। প্রায় দেড় বছর ধরে বিয়ের প্রলোভনে তাদের মধ্যে রিলেশানশিপ মজবুত হওয়ায় শারিরীক সম্পর্ক হয়।

এ নিয়ে মেয়ের বাড়ি থেকে ছেলের বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব পাঠায়। এতে প্রেমিকের বাবা-মা মেনে না নেয়ায় প্রেমিকার লোকজনকে ফিরিয়ে দেয়। এ দিকে ছেলে বিয়ে করতে অসম্মতি জানালে মেয়েটি উপায় না দেখে প্রেমিক হাসানের বাড়িতে চলে আসে আমরণ অনশনে বসে আত্মহত্যার হুমকি দেয়। মেয়েটি সাংবাদিকদের বলেন, আমি এখান থেকে যাব না। বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবো।

এ বিষয়ে লম্পট প্রেমিক পলাতক থাকায় তার বাবাকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, মেয়ে পক্ষ থেকে লোক আসছিল কয়েকদিন আগে। তখন আমি আমার ছেলেকে জিঞ্জাসা করলে সে এই মেয়ের সাথে সম্পর্কের কথা অস্বীকার করে। পরে আমি তাদের ফিরিয়ে দেই। আজ হঠাৎ মেয়েটি আমার বাড়িতে এসে উঠেছে। আমি বাড়ির বাইরে থাকায় মোবাইল ফোনে জানতে পারলাম।

প্রেমিকার নানা সিরাজউদ্দিন জানান, বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে আমরা ছেলের বাড়িতে গেলে তারা জানায়, ছেলের সাথে মেয়ের কোন সম্পর্ক নেই তাই আমাদের ফিরিয়ে দেয়। তাই বিয়ের দাবিতে ছেলের বাড়িতে গিয়ে আমার নাতনী ওঠেছে।

এ ব্যাপারে নাগডেমড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ জানান, আমি এই মাত্র বিষয়টি শুনলাম। ওই বাড়িতে লোক পাঠাচ্ছি খবর নেয়ার জন্য।

-এস