বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশিন (ইউজিসি) কর্তৃক স্বায়ত্বশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নতির অভিন্ন নীতিমালা প্রত্যাখ্যান করেছে ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় (ইবি) শিক্ষক সমিতি।

শনিবার দুপুরে সমিতির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মলনে এ ঘোষনা দেন শিক্ষক নেতারা। একই সাথে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনকে সভা আহবানের দাবি জানায় তারা।

সূত্র মতে, স্বায়ত্বশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নতির জন্য ইউজিসির অভিন্ন নীতিমালা নিয়ে গত ২৮ আগস্ট সাধারণ সভা করে ইবি শিক্ষক সমিতি। সাধারণ সভার সিদ্ধান্ত জানাতে শনিবার সাংবাদিকদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে তারা। সম্মেলনে সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে সভার সিদ্ধান্তসমূহ পেশ করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া।

সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত গুলো হলো, ‘প্রণীত নীতিমালা স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের বৈশিষ্ট্যের সাথে অসঙ্গতিপূর্ণ নীতিমালা সর্বসম্মতিক্রমে প্রত্যাখ্যান করা। সমন্বিত খসড়া নীতিমালা নিয়ে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনকে সভা আহবানের দাবি, নীতিমালা সম্পর্কে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাথে সমন্বয় করে ঐক্যবদ্ধ প্রদক্ষেপ গ্রহণ ও খসড়া নীতিমালার অসঙ্গতিসমূহ চিহ্নিত করে তা দূরকরণে ইউজিসি ও শিক্ষা মন্ত্রণলায় বরারবর পত্র প্রেরণ।’

এসময় শিক্ষক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন, সদস্য অধ্যাপক মাহবুবুল আরফিন, অধ্যাপক মেহের আলী, অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন সহ অন্যান্য শিক্ষক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে ইবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক কামাল উদ্দিন বলেন, ‘সমন্বিত নীতিমালায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্বশাসন বিঘ্নিত হবে। আমাদের দাবির মধ্যদিয়ে সারা দেশের বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনকে জাগ্রত করতে চাচ্ছি।’

এইচকেজে/ইবি