পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার সন্ধ্যা নদীতে অবৈধ জাল অপসারনে বিশেষ কম্বিং অপারেশন অভিযানের ভ্রাম্যমাণ আদালতের ওপর জেলেদের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ হামলায় মৎস্য কর্মকর্তা ও নৌ-পুলিশের এক সদস্যসহ ৩ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (২৪ জানুয়ারী) দুপুরে কাউখালীর আমরাজুড়ি ইউনিয়নের গন্ধর্ব আশ্রয়ন এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলায় জড়িত ও জাটকা নিধনের অপরাধে নেছারাদ উপজেলার সেহাংগল গ্রামের মৃত মোঃ আকসান হাওলাদারের ছেলে মোঃ রিয়াজ (৪০) নামে এক জেলেকে এক মাসের কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও কাউখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. খালেদা খাতুন রেখা এ কারাদন্ড প্রদান করেন।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ফনিভুষন পাল জানান, অবৈধ জাল অপসারনে বিশেষ কম্বিং অপারেশনে সকালে সন্ধ্যা নদীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোছা.খালেদা খাতুন রেখা, উপজেলা মৎস্য অফিসের লোকজন, নৌ- পুলিশ সদস্যসহ বেশ কয়েকজন নদীতে অভিযান চালনোর সময় প্রায় ৪ হাজার মিটার জাল জব্দ করি এবং নদীর পারে এক জেলের নিকট থেকে জাল উদ্ধার করতে গেলে আশ-পাশের জেলেরা আমাদের ট্রলারে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে এতে কয়েকজন আহত হয়।

পরে নৌ-পুলিশ অভিযান চালিয়ে রিয়াজ নামে এক জেলেকে আটক করে।

কাউখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. খালেদা খাতুন রেখা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

-শেখ রিয়াজ আহম্মেদ নাহিদ