গ্রাফিক্স : আজকের পত্রিকা

নগরায়নের প্রতিযোগিতায় ঢেকে যাচ্ছে শহরের প্রতিটি জায়গা। শুধুমাত্র বিনোদনের জন্যই নয় জীবনের জন্যও মানুষের দরকার পরে কিছু জিনিস শিখে রাখার, যার মধ্যে অন্যতম একটি হলো সাঁতার। সাঁতার এক ধরনের কৌশল যার দ্বারা মানুষ ও অন্যান্য প্রাণী তাদের শরীরের অঙ্গ সঞ্চালনের মাধ্যমে পানিতে বিচরণ করতে পারে।

বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ হওয়া সত্ত্বেও শহুরে জীবনে অভ্যস্থ আমরা অনেকেই সাঁতার জানি না। অথচ সাঁতার জানা শুধু আপনার আত্মরক্ষার জন্যই দরকারি নয়, বরং এটি একটি চমৎকার শরীরচর্চাও।

ঢাকায় সাঁতার শেখার জন্য পুকুর নেই, তবে সরকারি-বেসরকারি কিছু সুইমিং পুল আছে। এসব প্রতিষ্ঠানে নির্দিষ্ট ফির মাধ্যমে প্রশিক্ষকের অধীনে সাঁতার শেখা যায়।

জাতীয় সুইমিং কমপ্লেক্স, মিরপুর
পাঁচ বছর বয়স থেকে এখানে সাঁতার শেখানো হয়। রবি ও সোমবার বাদে প্রতিদিন খোলা। ভর্তি ফি আড়াই হাজার টাকা। পরের মাস থেকে দুই হাজার টাকা। ছেলে ও মেয়েদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা।
যোগাযোগ: ০১৯১২০৫৭৪৯৭।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সুইমিংপুল
বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছাড়াও এখানে সবাই সাঁতার শিখতে পারবে। মোট ৩ ভাগে ভর্তি নেওয়া হয়ে থাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুইমিংপুলে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, কর্মকর্তা/কর্মচারী এবং বহিরাগত। বহিরাগতদের জন্য সাত বছর বয়স থেকে ভর্তি হওয়া যাবে। তবে অবশ্যই চার ফুট লম্বা হতে হবে। ভর্তি ফি ২ হাজার ১০ টাকা। পরের মাস থেকে এক হাজার টাকা। প্রতি সপ্তাহে ৪ দিন করে ২ শিফটে সুযোগ রয়েছে সাঁতার শেখার।
যোগাযোগ: ০১৭১৯৮৭৮৯৪৮।

সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স
শুধু মেয়েদের জন্য। শুক্রবার ছাড়া প্রতিদিন সাঁতার শেখানো হয়। ছয়-সাত বছর বয়স থেকে ভর্তি করা হয়। ভর্তি ফি ৫০০ টাকাসহ প্রথম মাসে আড়াই হাজার টাকা। এরপর থেকে প্রতি মাসে দুই হাজার টাকা।
যোগাযোগ: ৯১১৯৭০৪।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম সুইমিংপুল
এখানে শুধু ছেলেদের সাঁতার শেখার ব্যবস্থা আছে। সাত বছর বয়স থেকে ভর্তি করা হয়। প্রথম মাসে দুই হাজার টাকা দিতে হবে। পরের মাস থেকে দেড় হাজার টাকা। সপ্তাহে পাঁচ দিন শেখানো হয়। মঙ্গল ও বুধবার বন্ধ। যোগাযোগ: ০১৭১২৬০৪৯৫২।

অফিসার্স ক্লাব
বেইলি রোডের অফিসার্স ক্লাবে পাঁচ বছর বয়স থেকে ভর্তি নেওয়া হয়। ১৬টি কোর্সে সাঁতার শেখানো হয়। ক্লাবের সদস্য না হয়েও এখানে সাঁতার শেখা যায়। ভর্তি ফি পাঁচ হাজার টাকা। তবে সাঁতারের পোশাকসহ ৬ হাজার ১০০ টাকা। ছেলে ও মেয়েদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা।
যোগাযোগ: ০১৯২৩৬২৫০৯৬

আজকের পত্রিকা/এসএমএস/জেবি