ঢাকা ওয়াসা। ছবি : সংগৃহীত

ঢাকা সিটি করপোরেশনের মতো ঢাকা ওয়াসাকেও দুই ভাগে ভাগ করতে বলেছে সংসদীয় কমিটি। ১৬ মে বৃহস্পতিবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত কমিটির বৈঠকে ওয়াসা নিয়ে আলোচনা হয়।

রাজধানীবাসীকে সুপেয় পানি সরবরাহ করতে মন্ত্রণালয়কে এই ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়। জানা যায়, সংসদ সচিবালয়ে ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান বৈঠকে উপস্থিত না হওয়ায় কমিটি অসন্তোষ প্রকাশ করেছে। তবে কি কারণে তারা বৈঠকে আসেননি তার ব্যাখ্যা চেয়েছে সংসদীয় কমিটি। ওয়াসার অনুপস্থিতে আব্দুস শহীদের সভাপতিত্বে বৈঠকে অংশ নেন সংসদীয় কমিটির সদস্য নুর-ই-আলম চৌধুরী, শেখ ফজলে নূর তাপস, আহসান আদেলুর রহমান এবং ওয়াসিকা আয়শা খান।

ওয়াসাকেও দুই ভাগে ভাগ করার বিষয়ে সংসদীয় কমিটির সভাপতি আব্দুস শহীদ গণমাধ্যমকে জানান, ‘যেহেতু ঢাকা অনেক বড় শহর। সিটি করপোরেশনও দুভাগে বিভক্ত হয়েছে। সব জনগণের সেবা দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে কমিটির সদস্যরা এ বিষয়ে মতামত দিয়েছে। মন্ত্রণালয়কে বিষয়টি ভেবে দেখতে বলা হয়েছে।’

সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৈঠকে স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতাধীন বেশ কিছু প্রকল্পের কাঙ্ক্ষিত অগ্রগতি না হওয়ায় কমিটি অসন্তোষ প্রকাশ করে এবং আগামী ৩০ জুনের মধ্যে এ বিষয়ে রিপোর্ট প্রদেওয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর এবং ঢাকা ওয়াসার গৃহীত প্রকল্পগুলোর কাজের অগ্রগতি সন্তোষজনক না হওয়া এবং ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক বৈঠকে উপস্থিত না হওয়ায় কমিটি ক্ষোভ প্রকাশ করে।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের আওতাধীন গৃহীত প্রকল্পের বিষয়ে আগামী দুই মাসের মধ্যে মূল্যায়ন রিপোর্ট দেওয়ার জন্যও কমিটি সুপারিশ করে। ঢাকার বাইরের সিটি করপোরেশনগুলো থেকে কোনও কর্মকর্তা বৈঠকে উপস্থিত না হওয়ায় কমিটি ক্ষোভ প্রকাশ করে এবং ব্যাখ্যাসহ আগামী বৈঠকে উপস্থিত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য মন্ত্রণালয়কে কমিটি সুপারিশ করে।

আজকের পত্রিকা/আ.স্ব/