চাটমোহরে বিয়ের মাত্র ৫ দিন পর শ্বশুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে থানায় মামলা করেছে নববধূর মা।

সোমবার রাতে মেয়েটি মা রাঙ্গা খাতুন বাদি হয়ে আইয়ুব আলীকে আসামী করে চাটমোহর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ শ্বশুর আইয়ুব আলীকে আটক করে মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

রোববার (১০ নভেম্বর) অভিযোগ পাওয়ার পর স্বামীসহ শ্বশুরকে আটক করেছে থানা পুলিশ।
ঘটনাটি ঘটেছে চাটমোহর উপজেলার নিমাইচড়া ইউনিয়নের সমাজ করৎকান্দি গ্রামে।

অভিযুক্ত শ্বশুর হলেন ওই গ্রামের আইয়ুব আলী কৃষক। পাবনা সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে নববধূর।

জানা যায়, মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) আইয়ুব আলীর একমাত্র ছেলে সালাউদ্দিনের সঙ্গে বিয়ে হয় একই ইউনিয়নের শীতলাই গ্রামের ওই নারীর। যদিও বাল্যবিয়ে, খাতা-কলমে বয়স ১৮ করা হয়েছে। বিয়ের পর বাবার বাড়িতে গিয়ে রোববার চাটমোহর থানায় এসে শ্বশুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দেন ওই নারী। পরে পুলিশ অভিযুক্ত আইয়ুব আলীকে আটক করে।