মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায়, সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে।

শনিবার (৯ নভেম্বর) সন্ধ্যার ঘটনায় রাতেই সাটুরিয়া থানায় মামলা করেছেন ধর্ষিত ছাত্রীর মা। অভিযুক্ত ধর্ষক হাবিবুর রহমান হবি ধামরাই উপজেলার নান্দেশ্বর গ্রামের সোরহাব হোসেনে ছেলে।

সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মতিয়ার রহমান মিয়া বলেন, শনিবার বিকেলে হাবিবুর রহমান হবি তার শ্বশুরবাড়ি সাটুরিয়ায় যায়। দোতলা বাড়ির নিচ তলায় ভাড়া থাকে ধর্ষিতা ছাত্রীর পরিবার। সন্ধ্যার দিকে ছাত্রীর বাবা ও মা কাজের কারণে বাইরে থাকার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ওই বাসায় ঢুকে হাবিবুর রহমান ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। বাসায় হবিবুরকে দেখতে না পেয়ে তার শ্বাশুড়ী খুঁজতে নিচ তলায় গিয়ে দুজনকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান।

তাৎক্ষনিকভাবে হাবিবুর রহমান পালিয়ে যায়। পড়ে ছাত্রীর মা-বাবা বাসায় ফিরে আসলে বিষয়টি তাদের বলা হয়। হাবিবুরের গর্ভবতী স্ত্রী চিকিৎসার কারণে হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত ধর্ষক হাবিবুর রহমান হবি পলাতক আছে উল্লেখ করে পুলিশের ওই কর্মকর্তা বলেন, আসামীকে গ্রেফতারের জোড় চেষ্টা চলছে।

ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ধর্ষিতাকে রবিবার সকালে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

শাহজাহান বিশ্বাস/মানিকগঞ্জ