শোকের মাস আগস্ট শুরু হলো। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করেছিল ঘাতকরা। নির্মম সেই হত্যাকাণ্ড স্বাধীন বাংলার উন্নয়ন-অগ্রগতিকে স্তিমিত করে, রুদ্ধ করে বাঙালির এগিয়ে চলার পথ। ম্লান হয় স্বাধীন গৌরবজ্জল ইতিহাস।

বাঙালির জাতিসত্তায় মিশে আছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এক অকুতোভয় বীর। পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে বাঙালির মুক্তির মহানায়ক।

বাঙালির গর্বের সেই মুক্তিযুদ্ধের মাত্র ৪ বছর পর ঘটে যায় নির্মম হত্যাকাণ্ড। পচাত্তরের ১৫ আগস্ট জাতির জনককে স্বপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে রচিত হয় এক কালো অধ্যায়।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনাশ্রিত রাজনৈতিক ধারাকে পরিবর্তনের অপচেষ্টায় লিপ্ত হয় দেশের বিপথগামী কিছু ব্যক্তি। বাংলা ও বাঙালির চিরায়ত সংস্কৃতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে মুছে দিতেই পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।

হাজার বছরের শৃঙ্খল ভেঙে বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। এই জনপদের সর্বত্রই বিচরণ ছিলো তার। স্বাধীনতার পর সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়তে চেয়েছিলেন এই বীর।

ভয়াবহ সেই ১৫ আগস্টে সৌভাগ্যক্রমে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা। নানা চড়াই উতরাই পেরিয়ে আবারও রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় বঙ্গবন্ধুর পরিবার। বিচার হয় জাতির পিতার হত্যাকারীদের। কলঙ্কমুক্ত হয় গোটা জাতি।

  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    5
    Shares