বাংলাদেশ জাতীয় কারুশিল্প পরিষদ ও বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে ৬ সেপ্টেম্বর থেকে ‘ঐতিহ্যের বিনির্মাণ’ শীর্ষক পাঁচ সপ্তাহব্যাপী জামদানি উৎসব ধানমণ্ডির বেঙ্গল শিল্পালয় প্রদর্শনশালায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই উৎসবের সমাপনী উপলক্ষে ১২ অক্টোবর বিকেল ৫টায় উৎসবের প্রাণপুরুষ জামদানি বয়ন শিল্পীদের সনদ প্রদান করা হয়েছে।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বয়ন শিল্পীদের হাতে সনদ তুলে দিয়েছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব গোলাম দস্তগীর গাজী (বীরপ্রতীক), এম.পি। আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন
বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন, বাংলাদেশ কারুশিল্প পরিষদের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম, উৎসবের কিউরেটর চন্দ্র শেখর সাহা, বাংলাদেশ কারুশিল্প পরিষদের নির্বাহী সদস্য ও সাবেক সভাপতি রুবী গজনভী, বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জনাব আবুল খায়ের লিটু ও বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক লুভা নাহিদ চৌধুরী। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন শেখ সাইফুর রহমান।

জামদানি উৎসব আয়োজনের মূল অনুষঙ্গ হিসেবে World Crafts Council-এর কাছে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁকে World Crafts City’র মর্যাদা দানের আবেদন করা হয়। এ লক্ষ্যে সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে World Crafts Council এর বিচারক দল বাংলাদেশ ঘুরে যান।

এর ফলে জামদানি শিল্পের পীঠস্থান হিসেবে সোনারগাঁর সুনাম ও কৃতিত্ব বিশ্ব দরবারে প্রতিষ্ঠিত হবে; ‘ক্রিয়েটিভ ট্যুরিজম’-এর দ্বার উন্মোচিত হবে; স্থানীয় উদ্ভাবনী শক্তি, মেধা ও অভিজ্ঞতার পরিধি বিস্তৃত হবে; জাতীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিজ্ঞতা ও কৌশল বিনিময়ের ক্ষেত্র তৈরি হবে; ভারতের মহাবলিপুরম (পাথর খোদাই) ও জয়পুর (গয়না), চিনের ফুশিন (অ্যাগেট),থাইল্যান্ডের সাখন নাখন (ইন্ডিগোডাই), ডেনমার্কের বর্নহোম (সিরামিক), ইরানের কারপোরগান (মৃৎশিল্প) ও ইসফাহানসহ বিশ্বের বিভিন্ন ক্রাফট সিটির সঙ্গে সহযোগিতা, অংশীদারিত্ব ও বিনিময়ের অভিনব সুযোগ সৃষ্টি হবে। বাংলাদেশ সরকার ও স্থানীয় প্রশাসনের উদার সহযোগিতা বাংলাদেশের জন্য এই গৌরব বয়ে এনেছে।

আজকের পত্রিকা/সিফাত