নিজেদের ঘরের মাঠ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে সাউদাম্পটনকে আতিথ্য দিয়েছে ম্যান ইউ। দুই দলের রোমাঞ্চকর লড়াই শেষ হয়েছে ২-২ সমতায়। প্রতিপক্ষের মাঠে শুরুটা দারুণ করে সাউদাম্পটন। ম্যান ইউয়ের ফরাসি মিডফিল্ডার পল পগবা বল হারালে তা পেয়ে যান নাথান রেডমন্ড। তার ক্রস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোল করতে ভুল করেননি অরক্ষিক আর্মস্ট্রং।

গোল হজমের পর নতুন করে শুরু করে টানা ১৭ ম্যাচ অপরাজিত থেকে খেলতে নামা ইউনাইটেড। ম্যাচের ষোড়শ মিনিটে মার্কাস রাশফোর্ড বল জালে পাঠালেও অফসাইডের জন্য সেটা বাতিল হয়। তবে চার মিনিট পরই আবার জালে বল পাঠান এই ইংলিশ স্ট্রাইকার। সমতা ফেরানো গোলটিতে অবদান রাখেন অ্যান্থনি মার্সিয়াল।

ম্যাচের ২৩ মিনিটে মার্সিয়ালের নৈপুণ্যে আবারো এগিয়ে যায় রেড ডেভিলরা। বাঁ দিক থেকে ব্রুনো ফার্নান্দেসের কাছ থেকে বল পেয়ে আড়াআড়ি শটে গোল করেন এই ফরাসি ফরোয়ার্ড। প্রথমার্ধে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা।

আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে জমে ওঠা ম্যাচে ৬৮তম সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেন রাশফোর্ড। বাইলাইন থেকে মার্সিয়াল কাট করলে বিপজ্জনক জায়গায় বল পান তিনি। খুব কাছে থাকলেও বাকিটা সারতে পারেননি এই ফরোয়ার্ড।

শেষের দিকে একের পর এক আক্রমণে ইউনাইটেডকে চেপে ধরে সাউদাম্পটন। অতিরিক্ত সময়ের ষষ্ঠ মিনিটে কর্নার থেকে কাঙ্ক্ষিত গোল পেয়ে যায় অতিথিরা। ওবাফেমির এই গোলে হাতছাড়া হয়ে যায় ইউনাইটেডের তিনে ওঠার সুযোগ।

৩৫ ম্যাচে ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে বর্তমান পয়েন্ট টেবিলের পাঁচে থেকে গেল সুলশারের দল। গোল পার্থক্যে তাদের চেয়ে এগিয়ে লেস্টার সিটি। অন্যদিকে আগেই শিরোপা জিতে নেয়া লিভারপুলের পয়েন্ট ৯৩। ৭২ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ম্যানচেস্টার সিটি। তিনে থাকা চেলসির পয়েন্ট ৬০।

  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares