জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর ৯৯তম জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় ৫ বছরের এক কন্যা শিশুকে ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে ছকিমুদ্দিন (৪৫) নামে এক নরসুন্দরের বিরুদ্ধে ।

১৭ মার্চদু রবিবার পুরে আশংকাজনক অবস্থায় শিশুটিকে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযুক্ত নরসুন্দর ছকিমুদ্দিন আদিতমারী উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের খোলাহাটি গ্রামের বাকী মামুদের ছেলে। তিনি ওই এলাকার সেতু বাজার নামক স্থানে একটি সেলুনের মালিক। শিশুটিও একই গ্রামের এবং স্থানীয় ব্র্যাক শিশু নিকেতনের শিক্ষার্থী।

শিশুটির পরিবার ও হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, সেতু বাজারে ছকিমুদ্দিনের সেলুনে চুল কাটাতে যায়। এসময় পাশ্ববর্তি দোকানগুলো বন্ধ থাকার সুযোগে নরসুন্দর ছকিমুদ্দিন দোকানের দরজা বন্ধ করে শিশুটিকে বিবস্ত্র করে ধর্ষন করে। এ সময় শিশুটি চিৎকার দিলে ধর্ষক ছকিমুদ্দিন তার হাতে ৫ টাকার একটি কয়েন দিয়ে বাহিরে বের করে দেয় এবং দ্রুত দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যায়।

পরে স্থানীয়রা শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার গাইনী ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। বর্তমানে শিশুটি হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

শিশুটির মা জানান, বাকশক্তি হারিয়ে ফেলা শিশুটি প্রসাব যন্ত্রনায় ছটফট করছিল। তাকে দ্রুত হাসপাতালে নেয়া হয়। খুব তারাতারি থানায় অভিযোগ দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

শিশুটির পরিচর্যায় থাকা সদর হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স সুষমা রায় জানান, ধর্ষনের আলামত সংগ্রহ করে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। শিশুটি ধর্ষনের শিকার হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে।

আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি তদন্ত) সাইফুল ইসলাম জানান, এমন কোন অভিযোগ তার জানা নেই। তবে খোঁজ খবর নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

আজকের পত্রিকা/জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না, লালমনিরহাট