শিশুর মধ্যে একসঙ্গে খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। ছবি : সংগৃহীত

অনেক বাবা-মায়ের অভিযোগ হচ্ছে শিশু পুষ্টিকর খাবার খেতে চায় না। শিশুর খাবারের প্রতি অরুচি বা পুষ্টিকর খাবার না খাওয়া বাবা-মায়ের চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। শিশুরা পুষ্টিকর খাবার না খাওয়ায় অনেক শিশু প্রতিনিয়ত অপুষ্টিজনিত রোগে ভুগছে। অন্যদিকে স্থূলতার হারও বাড়ছে সমান তালে। যুক্তরাজ্য জুড়ে শিশুদের স্থূলতা সম্প্রতি রেকর্ড পরিমাণে দাঁড়িয়েছে। আর স্থূলতার এই প্রবণতা একটি শহরে সবচেয়ে বেশি।

তবে সাম্প্রতিক এক জরিপ থেকে জানা যায় যে, শহরটি শিশুদের স্থূলতার হার ৬.৪% কমাতে সক্ষম হয়েছে। স্থূলতার মোকাবেলা করার জন্য দেশটির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ ছিল প্রি-স্কুল শিশুদের ওপর মনযোগ দেয়া। এছাড়া সুস্থ থাকার বিষয়ে শিশুদের উৎসাহী করতে বাবা মায়েদের ক্লাস করানো। তবে যা কিছুই হোক না কেন শিশুদের পুষ্টিকর খাবারের প্রতি রুচি বাড়াতে হবে। কারণ শিশুরা যদি পুষ্টিহীনতায় ভোগে তবে তাদের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ব্যহত হবে। আসুন জেনে নেই যেসব শিশুরা খেতে চায় না তাদের খাবারের রুটি বাড়াতে যা করতে হবে।

১) শিশুদের পছন্দমতো খাবার বেছে নেয়ার সুযোগ দিতে হবে। এতে শিশুর খাবারের চাহিদা বাড়বে।

২) আপনি যদি কোনো খাবার অপছন্দ করেন তবে তা শিশুর সামনে বলবেন না।

৩) শিশুদের জোর করে খাওয়াবেন না।

৪) শিশুদের একই খাবার প্রতিদিন খাওয়াবেন না। সপ্তাহে সাতদিন শিশুর খাবারের রেসিপি তৈরি করুন।

৫) শিশুরা পছন্দ করে এমন খাবার খেতে দিন।

৬) মাকে স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খেতে হবে। মাকে দেখে শিশু ওই খাবার খাওয়ার অভ্যাস রপ্ত করবে।

৭) স্বাস্থ্যকর খাবারের প্রতি উৎসাহিত করতে শিশুদের পার্কে নিয়ে যাওয়ার কথা বলতে পারেন।

৮) স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার জন্য পুরস্কার দিন ও প্রশংসা করুন।

৯) শিশুর মধ্যে একসঙ্গে খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

১০) খাবার খাওয়ানোর সময় গল্প, কবিতা ও ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলুন।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/