জামদানি ক্রেতাদের জন্য এ মেলা এক সুবর্ণ সুযোগ। ছবি : সংগৃহীত

ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির যৌথ উদ্যোগে জামদানি পণ্য প্রদর্শনী ও মেলা ২০১৯ আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে। শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন প্রধান অতিথির হিসেবে উপস্থিত থেকে শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে ১০ দিন ব্যাপি এ প্রদর্শনী ও মেলা উদ্বোধন করবেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক), শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার, সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, শিল্প সচিব মোঃ আবদুল হালিম, সংস্কৃতি সচিব (ভাঃ) ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব (ভাঃ) মোঃ মিজানুর রহমান। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করবেন বিসিক চেয়ারম্যান মোশ্তাক হাসান ।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে ১৬ মে থেকে শুরু হয়ে মেলা ২৫ মে পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত দর্শণার্থী ও ক্রেতা সাধারণের জন্য উম্মুক্ত থাকবে।

বিসিকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জামদানি একটি বংশানুক্রমিক কারুশিল্প। নারায়ণগঞ্জ জেলাধীন রূপগঞ্জ উপজেলার বেশ কিছু গ্রাম এবং সিদ্ধিরগঞ্জ ও সোনারগাঁও উপজেলার কয়েকটি গ্রামে যুগ যুগ ধরে জামদানি তৈরি হয়ে আসছে। বিসিক জামদানি শিল্পের উন্নয়নে কারুশিল্পীদের একই স্থানে শিল্প স্থাপনে অবকাঠামোগত সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে তাদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন এবং নতুন প্রজন্মকে উৎসাহ প্রদান, উৎপাদন বৃদ্ধি ও বিপণন সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।

তাছাড়া এখানে একটি হাটকর্নার স্থাপিত হয়েছে। সপ্তাহে প্রতি বৃহস্পতিবার এ হাটে জামদানি কারুশিল্পীর উৎপাদিত জামদানি পণ্য বিক্রির সুযোগ পাচ্ছেন।বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় মেলায় ২৫ টি স্টলে জামদানি কারুশিল্পীরা তাদের নিপুণ হাতের তৈরি তেরছা, জলপাড়, পান্নাহাজার, করোলা, দুবলাজাল, সাবুরগা, বলিহার, শাপলাফুল, আঙ্গুরলতা, ময়ূরপ্যাচপাড়, বাঘনলি, কলমিলতা, চন্দ্রপাড় ও ঝুমকা ইত্যাদিসহ আরও অনেক বাহারি নামের ও নানাবিদ নকশার জামদানি শাড়ীর পসরা সাজিয়ে বসবেন।

আজকের পত্রিকা/আরকে/এমএইচএস