আদালত। প্রতীকী ছবি

মানিকগঞ্জের শিবালয়ের পদ্মা-যমুনায় সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মা ইলিশ শিকারের অপরাধে ১৫জন জেলেকে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

শিবালয় উপজেলা মৎস কর্মকর্তা মো. আতিয়ার রহমান জানান, সোমবার সকালে শিবালয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার এএফএম ফিরোজ মাহমুদ এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।

রোববার দিবগত রাত ১০টার পর থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালিত হয়। এসময় পদ্মা-যমুনার বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে ১৫জন জেলেকে আটক ও ৮০ কেজি মা ইলিশ এবং ৪ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। জব্দকৃত মাছ উপজেলার বিভিন্ন এতিমখানায় বিতরণ করে কারেন্ট জাল পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।

সাজাপ্রাপ্ত জেলেরা হলেন, মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় উপজেলার সমেষঘর তেওতা গ্রামের মো. সালাম মোল্লা (৪৬), মো. মামুন মুন্সি (৩৫), মো. তোরাব আলী (৩৬), মো. আশরাফ শেখ (৩৭) , মো. চাঁন মিয়া (৪০), মো. হাজাজ (৪২), মো. তৈয়ব আলী (৫০), নিহালপুরের মো. আক্কাস শেখ (৫২), বকুল শেখ (৪৫) পান্নু ফকির (৪২), আলোকদিয়ার মো. বাদল মিয়া (২২), মো. সাইফুল (১৯), দৌলতপুর উপজেলার রেহাদুর্গাপুর গ্রামের মো. ছানোয়ার (২৬) রেহাদুর্গাপুর, পাবনার দাসপাড়ার মহিব মন্ডল (৩২), আমিনপুরের মো. আবু সালাম মোল্লা (৫৮)।

এর আগে গত রোববার ( ১৩ অক্টোবর) ১৫জন এবং গত শনিবার (১২ অক্টোবর) আটক ৮জন জেলের প্রত্যেককে এক বছর করে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। এনিয়ে এপর্যন্ত ৩৮জন জেলেকে কারাদন্ড প্রদান করা হয়। সবমিলিয়ে ১শ কেজি মাছ ও ১লাখ ৬হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দকৃত জাল পুড়িয়ে ফেলা হয়। অভিযানকালে ৬টি মাছ ধরার ট্রলার নদীতে ভাসিয়ে দেয়া হয়।

শাহজাহান বিশ্বাস/মানিকগঞ্জ