ছবি: সংগৃহীত

ফাঁকা হচ্ছে রাজধানী। ট্রেন-বাস-লঞ্চ টার্মিনালগুলোতে ঘর ফেরা মানুষের ভিড়। প্রতি বছর দুই ঈদের আনন্দ স্বজন ও প্রিয়জনদের সঙ্গে ভাগাভাগি করে নিতে হাজার ভোগান্তি নিয়েও বাড়ি ফিরেন তারা। শিডিউল বিপর্যয়, অতিরিক্ত মানুষের চাপ, আসন না পাওয়ার ভোগান্তি মেনে নিয়েই নাড়ির টানে এই বাড়ি যাওয়া।

১০ আগস্ট শনিবার ঈদ যাত্রার চতুর্থ দিনে চরম শিডিউল বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হচ্ছে ট্রেনের যাত্রীদের। গতকাল টাঙ্গাইলে ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হওয়ায় রাজধানীর সঙ্গে সাড়ে ৩ ঘণ্টা বন্ধ ছিল দেশের উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলের রেল যোগাযোগ। এরই ধারাবাহিকতায় পশ্চিমাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ ট্রেনগুলো শনিবারও দেরিতে ছাড়বে।

জানা গেছে, গতকালকের চাপের কারণে আজ এই অঞ্চলের কোনো কোনো ট্রেন ৬, ৮ এমনকি ১০ ঘণ্টা বিলম্বে ছাড়বে। এতে চরম ভোগান্তি আর সীমাহীন বিড়াম্বনায় পড়েছে ঘরমুখো মানুষ। কমলাপুর রেলস্টেশনে টানানো শিডিউল থেকে জানা যায়, রাজশাহীগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটি সাড়ে ৮ ঘণ্টা দেরিতে আনুমানিক বেলা ২টা ৩০ মিনিটে ছেড়ে যাবে। খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ৬ ঘণ্টা দেরিতে আনুমানিক দুপুর সাড়ে ১২টায় ছেড়ে যাবে।

এছাড়া চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ৮ ঘণ্টা দেরিতে আনুমানিক বিকেল ৪টায় এবং রংপুরগামী রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনটি বিলম্ব হবে উল্লেখ করা থাকলেও সম্ভব্য সময় জানানো হয়নি। যদিও রেলসূত্রে জানা যায়, প্রায় ৮ ঘণ্টা দেরিতে আনুমানিক বিকেল ৫টায় ছেড়ে যেতে পারে রংপুর এক্সপ্রেস। তবে এ সময় পরিবর্তনও হতে পারে।

আজকের পত্রিকা/সিফাত