অভিভাবকের হাতে সম্মাননা তুলে দিচ্ছেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি এডভোকেট মো. আবু জাহির। ছবি : সংগৃহীত

এ বছর দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষার সুযোগ পাওয়ায় কৃতি শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ ও এসএসসি-এইচএসসি’তে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন অব শায়েস্তাগঞ্জ’(ইউসাস)। অভিভাবক এবং সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকেও সম্মাননা দেয় ইউসাস।

গত ১৪ আগস্ট বুধবার বিকেলে শায়েস্তাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের এডভোকেট মো. আবু জাহির অডিটরিয়ামে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট মো. আবু জাহির।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের শিক্ষা ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের সার্বিক উদ্যোগ হাতে নিয়েছি। আশা করি দ্রুতই তা বাস্তবায়ন করা হবে।’
এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা শায়েস্তাগঞ্জে একটি পাবলিক লাইব্রেরি স্থাপনের দাবি জানালে তিনি তা বাস্তবায়নের আশ্বাস দেন।


অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দিচ্ছেন প্রধান অতিথি এডভোকেট মো. আবু জাহির। ছবি : সংগৃহীত

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব অশোক মধাব রায়, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোহাম্মদ আজিজুল ইসলাম শামীম।

এছাড়া প্রথমবারের মত শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদে নির্বাচিত হওয়ায় চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, ভাইস চেয়ারম্যান গাজিউর রহমান ইমরান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ মুক্তা আক্তারকে সংবর্ধিত করা হয়।

অনুষ্ঠানে ইউসাসের সভাপতি কাজী সাজিম আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নূরুজ্জামান পাভেল ও আশিকা আক্তার শিথিল।

শিক্ষার্থীর হাতে সম্মাননা তুলে দিচ্ছেন ইউসাসের সভাপতি কাজী সাজিম আহমেদ। ছবি : সংগৃহীত

উল্লেক্ষ্য, ‘এগিয়ে যাবো-এগিয়ে নিবো, শিক্ষিত সমাজ গড়ে তুলবো’ এ স্লোগানকে ধারণ করে ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন অব শায়েস্তাগঞ্জ (ইউসাস)। সংগঠনের মূল লক্ষ হচ্ছে শায়েস্তাগঞ্জের শিক্ষার মান উন্নয়নসহ প্রতিষ্ঠিত মানুষ তৈরি করা। এই লক্ষে ইউসাস বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনুপ্রেরণার জন্য ক্যাম্পেইন, ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের ভর্তি সহায়তা, দরিদ্র পরিবারের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সহায়তাসহ নানা কাজ করে থাকে।

অনুষ্ঠান শেষে গ্রুপ ছবি। ছবি : সংগৃহীত