জাতীয় সংসদের অধিবেশন। ছবি : সংগৃহীত

বোরো মৌসুমের গত দুই মাসে লক্ষ্যমাত্রার মাত্র ১২ শতাংশ ধান সরকার সংগ্রহ করেছে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। ২০ জুন বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এসব তথ্য জানান।

সিদ্ধ চাল সংগ্রহ হয়েছে লক্ষ্যমাত্রার ৪২ শতাংশ জানিয়ে প্রশ্নোত্তরে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার জানান, বোরো মৌসুমে সরকার প্রথমে দেড় লাখ মেট্রিক টন ও পরে আরও আড়াই লাখ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ এবং ১০ লাখ মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল সংগ্রহের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

রংপুর-২ আসনের আবুল কালাম মো. আহসানুল হকের প্রশ্নের জবাবে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, ‘চলতি বোরো মৌসুমে প্রাথমিকভাবে এক লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন ধান, এক লাখ ৫০ হাজার মেট্রিন টন আতপ চাল এবং ১০ লাখ মেট্রিন টন সিদ্ধ চাল সংগ্রহের সিদ্ধান্ত হয়। গত ২৫ এপ্রিল থেকে এ সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়।

১৬ জুন পর্যন্ত ৪৬ হাজার ২৬৩ মেট্রিক টন ধান (দুই দফায় নেওয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী লক্ষ্যমাত্রার ১১.৫৭%), চার লাখ ২৩ হাজার ৫৩২ মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল (লক্ষ্যমাত্রার ৪২.৩৬%), ৩৬ হাজার ৩০৬ মেট্রিক টন আতপ চাল ও ২৩ হাজার ৬১২ মেট্রিক টন গম সংগ্রহ করা হয়েছে। বাম্পার ফলনের কথা চিন্তা করে পরে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ২ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন ধান সংগ্রহের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। তবে, কৃষকদের থেকে সরাসরি চাল সংগ্রহের কোনও পরিকল্পনা নেই।’

সংরক্ষিত আসনের আরমা দত্তের প্রশ্নের জবাবে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার আরও জানান, মধ্যস্বত্বভোগী ও ফরিয়ারা যাতে কৃষকদের ধানের ন্যায্যমূল্য বঞ্চিত করতে না পারে সেজন্য খাদ্যশস্য নীতিমালা ২০১৭-এর আলোকে কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের প্রণীত ও উপজেলা সংগ্রহ ও মনিটরিং কমিটি অনুমোদিত তালিকা অনুযায়ী কৃষকদের থেকে ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে। ১০ টাকা দিয়ে খোলা কৃষকদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ধানের মূল্য পরিশোধ করা হচ্ছে।

জানা গেছে, ২৫ এপ্রিল শুরু হয়ে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বোরো মৌসুমে সংগ্রহ চলবে।

আজকের পত্রিকা/আ.স্ব