আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। ফাইল ফটো

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে র‌্যাগিংয়ের নামে নির্যাতন শিকার হয়ে কেউ নালিশ করলে প্রচলিত আইনেই তার বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

বুয়েটছাত্র আবরার ফাহাদকে নির্যাতন চালিয়ে হত্যার প্রেক্ষাপটে ১৬ অক্টোবর বুধবার সচিবালয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সংযুক্ত প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নে একথা বলেন তিনি।

হলের ভেতরে বুয়েট ছাত্রলীগের একদল নেতা-কর্মীর নির্যাতনে আবরার নিহত হওয়ার পর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিংয়ের নামে নির্যাতনের ঘটনা প্রকাশ পাচ্ছে। বুয়েটেও দীর্ঘদিন ধরে র‌্যাগিংয়ের নামে নির্যাতন চলত বলে প্রকাশ পেয়েছে।

র‌্যাগিং বন্ধে কোন আইন করা হবে কি না- সাংবাদিকরা জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, র‌্যাগিং কথাটার জন্য হয়ত আইন নাই, র‌্যাগিংয়ের মাধ্যমে যদি কোনো অপরাধ করা হয়, যদি থাপ্পড় দেওয়া হয়, সেটাও কিন্তু পেনাল কোডে অপরাধ হিসাবে ৩২৩ এ শাস্তিযোগ্য।

সম্প্রতি র‌্যাগিংয়ের কথাগুলো  উঠে এসেছে। যারা র‌্যাগিংয়ের ভিকটিম তাদের উৎসাহ করবেন, তারা যেন নালিশ করে। নালিশ করলে আমাদের যথেষ্ট আইন আছে ,যেগুলোর আওতায় র‌্যাগিংয়ের মাধ্যমে যে অপরাধ করা হয়, সেগুলোর বিচার প্রচলিত আইনেই আমরা করবো।

তবে র‌্যাগিং বন্ধের জন্য আদালতে বিচারই একমাত্র পথ বলে মনে করেন না তিনি।

আইনমন্ত্রী বলেন, আইন আদালতে আসলেই সমাধান হবে, তা নয়। ইন হাউজ সিস্টেম বিল্ড করতে হবে। সেখানে নালিশ করলে প্রতিকার হবে এবং নালিশ করলে আর র‌্যাগিং হবে না। এরকম কমপ্লেইন সিস্টেম গঠন করতে হবে।

আজকের পত্রিকা/কেএফ