ধর্ষণ। প্রতীকী ছবি

রৌমারীতে প্রথম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে বখাটে। ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে রৌমারী হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসকরা তাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা মোহাম্মদ আলী বাদী হয়ে রৌমারী থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে ৬ নভেম্বর (বুধবার) দুপুরের দিকে কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলার বন্দবেড় ইউনিয়নের বন্দবেড় গ্রামে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলার বন্দবেড় গ্রামের মোহাম্মদ আলীর শিশু কন্যা বাঘমারা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীতে লেখাপাড় করে। একই গ্রামের সমশের আলীর বখাটে ছেলে জেনারুল ইসলাম (২২) শিশুটিকে বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে ফুসলিয়ে সোনাভরি নদীরপাড়ে বাতেনের ধানক্ষেতে নিয়ে তাকে উপর্যপরি ধর্ষণ করে।

এক পর্যায়ে শিশুটির চিৎকারে গ্রামবাসি নজরুলের ছেলে আমিনুল ইসলাম তাকে উদ্ধার করে রৌমারী হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক হিরো আল আমিন তাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতারে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা মোহাম্মদ আলী বাদী হয়ে রৌমারী থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এব্যাপারে রৌমারী থানার অফিসার ইনচার্জ আবু মোহাম্মদ দিলওয়ার হাসান ইনামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার কথা স্বীকার কওে বলেন, নিয়মিত মামলা হয়েছে। শিশুটিকে পরীক্ষার জন্য কুড়িগ্রাম সরকারী হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে এবং আসামী ধরার চেষ্টা চলছে।

মাসুদ পারভেজ রুবেল/কুড়িগ্রাম