ইফতার বিতরণ করছেন বৌদ্ধ বিহার। ছবি : সংগৃহীত

রাজধানীর বাসাবোর ধর্মরাজিক বৌদ্ধ বিহার। প্রতি বছর রমজান মাস এলেই রোজাদারদের মাঝে ইফতার বিতরণ করেন প্রতিষ্ঠানটি। ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার বিপরীতে দাঁড়িয়ে গত ১০ বছর ধরে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য নজির রাখছেন এই বিহার।

প্রতিদিন মাগরিবের আজানের ঘণ্টাখানেক আগে থেকেই বৌদ্ধ মহাবিহারে লাইনে দাঁড়িয়ে ইফতারের প্যাকেট গ্রহণ করেন রোজদাররা। বিহার থেকে পাঁচশ শতাধিক প্যাকেট বিতরণ করা হয় প্রতিদিন। এ জন্য গড়ে ১০ হাজার টাকারও বেশি খরচ করতে হয় বিহার কর্তৃপক্ষের। মাসের হিসেবে সেটি তিন লাখ ছাড়িয়ে যায়।

বৌদ্ধ বিহারের এমন অসাম্প্রদায়িক চেতনায় খুশি এলাকার স্থানীয় লোকজন। বিহারের পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলেন জাফর আহমেদ। তিনি বলেন, ‘এ দেশের প্রতিটি ধর্মের দায়িত্বশীল মানুষগুলো যদি এমন আচরণ করতেন, তাহলে আমাদের দেশটা সত্যিই সুন্দর হতো। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এর উল্টোটা ঘটে। বৌদ্ধ বিহারের এমন আয়োজনে ধর্মগুরুদের প্রতি শ্রদ্ধা।’

ইফতারের জন্য দেওয়া হয় ছোলা, মুড়ি আর জিলাপির প্যাকেট।

ইফতার বিতরণ কার্যক্রমে নিয়োজিত মহাবিহারের আবাসিক ভিক্ষু কমল ভান্তে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘মানুষের মনে শান্তি প্রতিষ্ঠা করাই আমাদের মূল লক্ষ্য। দুনিয়ার সব মানুষের দুঃখ হয়তো আমরা নিঃশেষ করে দিতে পারব না, তবে অল্প কিছু মানুষের জন্য হলেও সেই চেষ্টাটি আমরা করব।’

আজকের পত্রিকা/এমএআরএস/জেবি