আমাদের দেশে যে খাবারগুলো বেশ জনপ্রিয় তার মধ্যে দই বড়া অন্যতম। ছবি: সংগৃহীত

আমাদের দেশে যে খাবারগুলো বেশ জনপ্রিয় তার মধ্যে দই বড়া অন্যতম। টক, মিষ্টি, ঝাল স্বাদের এই খাবারটি খেতে দারুন। এই খাবারটি বাসায় তৈরি করলেও  রেস্টুরেন্ট এর মত স্বাদ পাওয়া যায় না বলে মনে করেন অনেকে। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক রেস্টুরেন্ট এর স্বাদের দই বড়া তৈরির রেসিপিটি।

উপকরণ

১ কাপ অড়হর ডাল
২ কাপ দই
২ কাপ বাটার মিল্ক
২ চা চামচ ভাজা জিরা গুঁড়া
২ চা চামচ লাল মরচ গুঁড়া
তেল
১ চা চামচ জিরা
১/২ চা চামচ হিং
গোল মরিচের গুঁড়া স্বাদ মত
২ টেবিল চামচ খেজুর ও তেঁতুলের চাটনি

টক দইয়ের ওপর খেজুর-তেঁতুলের চাটনি, জিরা গুঁড়া, লাল মরিচের গুঁড়া, ধনে পাতা কুচি দিয়ে দিন। ছবি: সংগৃহীত

প্রণালী

সারা রাত অড়হরের ডাল ভিজিয়ে রাখুন। সকালে খোসা ছাড়িয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন। প্রয়োজনে অল্প কিছু পানি দিয়ে ব্লেন্ড করুন। এখন ডালের পেষ্টে জিরা, হিং, গোল মরিচের গুঁড়া, লবণ দিয়ে খুব ভাল করে মিশিয়ে নিন। এবার ডাল দিয়ে ছোট ছোট বড়া ভেজে নিন। ভাজার সময় খেয়াল রাখবেন তেল যেন খুব বেশি গরম না হয়ে যায়। তেল বেশি গরম হয়ে গেল বড়াগুলো লাল হয়ে যাবে। আর এতে দই ভালমত ঢুকবে না। বড়াগুলোকে প্যানে তেলের মাঝে ক্রমাগত ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ভাজতে হবে। বড়া গুলো হালকা বাদামি রং হয়ে আসলে নামিয়ে ফেলুন। এবার বড়াগুলো বাটার মিল্ক এর মধ্যে ৫- ১০ মিনিট ডুবিয়ে রাখুন। বাটার মিল্কের সাথে সামান্য লবণ যোগ করে নিবেন। বাটার মিল্ক না থাকলে আপনি পানির মধ্যে বড়াগুলো ভিজিয়ে রাখতে পারেন। পানিতে লবণ দেওয়ার প্রয়োজন নেই। তারপর টক দইয়ের সাথে লবণ মিশিয়ে ভাল করে ফাটুন। এখন বড়া গুলো বাটারমিল্ক/পানি থেকে উঠিয়ে ভাল করে চেপে পানি বের করে নিন। এখন বড়া গুলো একটি পাত্রে রাখুন। তার উপর টক দই দিয়ে দিন। টক দইয়ের ওপর খেজুর-তেঁতুলের চাটনি, জিরা গুঁড়া, লাল মরিচের গুঁড়া, ধনে পাতা কুচি দিয়ে দিন। ব্যস হয়ে গেল তৈরি মজাদার দই বড়া।এবার আর এই খাবারটি খেতে রেস্টুরেন্টে যেতে ইচ্ছে করবে না মোটেই।

আজকের পত্রিকা/রিয়া/এমএইচএস