রিকশাচালকের সততায় হারিয়ে ফেলা ২০ লাখ টাকা ফেরত পেলেন বগুড়ার এক ব্যবসায়ী।

শুক্রবার সকালে রাজীব প্রসাদ নামের ওই সার ব্যবসায়ী টাকাগুলো রিকশায় ফেলে যান। পরে পুলিশের মাধ্যমে ব্যবসায়ীর হাতে টাকাগুলো ফেরত দেন রিকশাচালক লালমিয়া।

বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান জানান, শহরের জলেশ্বরীতলা এলাকার বাসিন্দা রাজীব প্রসাদ শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে রিকশাযোগে সাতমাথা এলাকায় যান। সেখান থেকে তিনি রাজশাহীগামী একটি বাসে চেপে বসার পর তার মনে পড়ে তিনি তার টাকার ব্যাগটি রিকশায় ফেলে এসেছেন। বাস থেকে নেমে তিনি আবারো সাতমাথায় এসে ওই রিকশাচালককে আর খুজে পান নি।

পরে তিনি বিষয়টি থানায় জানালে পুলিশ সাতমাথা এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ থেকে ওই রিকশাচালকের ছবি সংগ্রহ করে। অনেক খোজাখুজির পর শেষ পর্যন্ত দুপুরে শহরের মালগ্রাম এলাকায় সন্ধান মেলে ওই রিকশাচালকের। তিনি পুলিশের কাছে টাকার ব্যাগটি পাবার সত্যতাও স্বীকার করেন। পরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এসে ব্যবসায়ী রাজীব প্রসাদের হাতে টাকাগুলো ফেরত দেন ওই রিকশাচালক।

রিকশাচালক লাল মিয়া জানান, যাত্রী নেমে যাবার একটু পর খেয়াল করি তিনি একটি ব্যাগ ফেলে গেছেন। ফেরত দিতে আবারো সাতমাথায় এলেও তাকে আর খুজে পাই নি।

পরে ব্যাগের ভেতরে বিপুল পরিমাণ টাকা দেখে তিনি তা বাসায় রেখে আবারো রিকশা নিয়ে বের হন। সন্ধ্যায় টাকাটা নিয়ে থানায় পৌছে দেয়ার ভাবনা ছিলো বলেও জানান তিনি।

হারানো টাকা ফেরত পেয়ে খুশি ব্যবসায়ী রাজীব রিকশাচালক লাল মিয়াকে একটি নতুন রিকশা ও মোবাইল ফোন কিনে দেয়ার জন্য ৫৪ হাজার টাকা উপহার দেন।