ধর্ষণ। প্রতীকী ছবি

রাতের শহরে চলন্ত গাড়িতে গণধর্ষণের শিকার হলেন এক মহিলা। আশ্রয়কেন্দ্রর ওই বাসিন্দাকে গাড়িতে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে দুই যুবকের বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে ভারতে দক্ষিণ কলকাতার পঞ্চসায়র এলাকা এ ঘটনা ঘটে।

সূত্রের খবর, মানসিক কিছু সমস্যা ছিল ৩৫ বছরের ওই মহিলার। সে কারণেই আশ্রয়কেন্দ্রে থাকতেন তিনি। সোমবার রাতে আচমকাই আশ্রয়কেন্দ্রের তালা ভেঙে বাইরে বেরিয়ে যান তিনি, হাঁটতে থাকেন পিয়ারলেসের ইনের দিকে। এরপরই একটি সাদা রঙের গাড়ি এসে দাঁড়ায় তার সামনে।

মহিলাকে তুলে নিয়ে রাতভর অত্যাচার চালানো হয়। এরপর মঙ্গলবার সোনারপুর স্টেশন এলাকায় রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে ফেলে দিয়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতিরা।

নিগৃহীতার বয়ান অনুযায়ী, বেধড়ক মারধর করা হয়ে তাকে। গাড়ি থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়ায় মাথায় গুরুতর চোটও পান তিনি। অজ্ঞান হয়ে যান সেখানেই। এ ঘটনায় পঞ্চসায়র থানায় দুই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে নিগৃহীতার পরিবার।

তার বয়ানে ফিরোজ নামে এক ব্যক্তির নাম উঠে এসেছে। তবে পুলিশ আশ্বস্ত করলেও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। আশ্রকেন্দ্র ও রাস্তার সিসিটিভি ফুটেজও সংগ্রহ করেছে পুলিশ। অভিযুক্তদের খোঁজ শুরু করা হয়েছে। ঘটনায় প্রশ্ন উঠছে আশ্রয়কেন্দ্রের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েও।